MysmsBD.ComLogin Sign Up

Search Unlimited Music, Videos And Download Free @ Tube Downloader

৩,৪০,৬০৫ কোটি টাকার বাজেট আজ

In অর্থনীতি খবর - Jun 02 at 1:12am
৩,৪০,৬০৫ কোটি টাকার বাজেট আজ

অনেকটা ফুরফুরে মেজাজে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত আজ বৃহম্পতিবার জাতীয় সংসদে আগামী অর্থবছরের বাজেট পেশ করতে যাচ্ছেন।

বেলা সাড়ে ৩টায় ৮৩ বছরে পা দেয়া অর্থমন্ত্রী ২০১৬-১৭ অর্থবছরের যে বাজেট প্রস্তাব করবেন তার আকার চূড়ান্ত করা হয়েছে তিন লাখ ৪০ হাজার ৬০৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে ঘাটতি থাকবে ৯৭ হাজার ৮৫৩ কোটি টাকা। এই ঘাটতি মেটানো হবে ব্যাংক ও সঞ্চয়পত্র থেকে বিশাল অঙ্কের ঋণ নিয়ে। ব্যাংক থেকে ঋণ নেয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হচ্ছে ৩৮ হাজার ৯৩৮ কোটি টাকা। আর সঞ্চয়পত্র থেকে ঋণ নেয়া হবে ২০ হাজার কোটি টাকা।
অর্থমন্ত্রীর বাজেট বক্তৃতায় সরকারের উন্নয়নের ফিরিস্তি থাকবে। কিন্তু থাকবে না ব্যর্থতার কোনো চিত্র। গত এক বছরে ব্যাংকিং খাতে কী সব কেলেঙ্কারি হয়েছে তা পুরোপুরি চেপে যাওয়া হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ছিটেফোঁটা উল্লেখও থাকবে না অর্থমন্ত্রীর বাজেট বক্তৃতায়।

কিন্তু থাকবে বর্তমান সময়ে জিডিপি প্রবৃদ্ধি, মাথাপিছু আয়, রফতানি, রেমিট্যান্স কিভাবে বেড়েছে তার বর্ণনা। একটি সুবিধা মতো সময় বা মাস দিয়ে এর ইতিবাচকতা দেখানোর চেষ্টা করা হবে। বক্তৃতায় কিছুটা আক্ষেপ করা হবে বেসরকারি বিনিয়োগ কাক্সিক্ষত হারে না বাড়ায়। সরকারের অন্তত ১০ মেগা প্রকল্পে অর্ধলক্ষাধিক কোটি টাকা বরাদ্দও থাকবে বাজেটে। এই সব প্রকল্পের কাজে অগ্রগতি চিত্র আলাদা পুস্তিকার মাধ্যমে প্রকাশ করা হবে।
অর্থ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বাজেটে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হচ্ছেÑ দুই লাখ ৪২ হাজার ৭৫২ কোটি টাকা। এর সিংহ ভাগ আদায় করা হবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) মাধ্যমে। এই প্রতিষ্ঠানের জন্য রাজস্ব আয়ের টার্গেট দেয়া থাকছে দুই লাখ তিন হাজার ৪৫২ কোটি টাকা।

নতুন অর্থবছরের বাজেটে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) আওতায় ব্যয় করা হবে এক লাখ ১০ হাজার ৭০০ কোটি টাকা। এডিপিবহির্ভূত প্রকল্পে ব্যয় আরো চার হাজার ১৪৭ কোটি টাকা।


প্রস্তাবিত বাজেটে বিভিন্ন ধরনের প্রণোদনা খাতে সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ-পিপিপি খাতে বরাদ্দ রয়েছে দুই হাজার কোটি টাকা। ব্যাংক পুনর্মূলধন খাতে অর্থ রাখা হয়েছে আরো দ্ইু হাজার কোটি টাকা। আগামী অর্থবছরের মোট দেশজ উৎপাদন বা জিডিপির প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে সাত দশমিক ২ শতাংশ। আর মূল্যস্ফীতির হার নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ দশমিক ৮ শতাংশ। বাজেট ঘাটতি হবে জিডিপির ৫ শতাংশ।

এবারো ডিজিটাল পদ্ধতিতে অর্থাৎ পাওয়ার পয়েন্টে বাজেট উপস্থাপন করা হবে। ওই দিন বাজেট বক্তৃতা, সম্পূরক আর্থিক বিবৃতি, প্রজাতন্ত্রের সরকারি হিসাব, সংযুক্ত তহবিলপ্রাপ্তি, মঞ্জুরি ও বরাদ্দের দাবিসমূহ (অনুন্নয়ন ও উন্নয়ন), বিস্তারিত বাজেট (উন্নয়ন), নারী উন্নয়ন ও অধিকার প্রতিষ্ঠায় চল্লিশটি মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম, শিশুদের নিয়ে বাজেট ভাবনা, মধ্যমেয়াদি সামষ্টিক অর্থনৈতিক নীতি বিবৃতি; মধ্যমেয়াদি বাজেটকাঠামো, বার্ষিক আর্থিক বিবৃতি, বাজেটের সংক্ষিপ্তসার, দক্ষতা উন্নয়ন-উচ্চতর প্রবৃদ্ধি অর্জনের অগ্রাধিকার, কাঠামো রূপান্তরে বৃহৎ প্রকল্প : প্রবৃদ্ধি সঞ্চারে নতুন মাত্রা, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সমীক্ষা-২০১৬ ও ডিজিটাল বাংলাদেশের পথে অগ্রযাত্রা : হালচিত্র ২০১৬ ওয়েবসাইটে প্রকাশসহ জাতীয় সংসদ হতে কপি সরবরাহ করা হবে। একই সাথে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ প্রণীত ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর কার্যাবলী-২০১৫-১৬ সংসদে পেশ করা হবে।

Googleplus Pint
Asifkhan Asif
Posts 1365
Post Views 158