MysmsBD.ComLogin Sign Up

নিরাপত্তার জন্য ফেসবুকে আনফ্রেন্ড করুন ৭ রকম মানুষকে

In লাইফ স্টাইল - May 21 at 9:59am
নিরাপত্তার জন্য ফেসবুকে আনফ্রেন্ড করুন ৭ রকম মানুষকে

একবিংশ এই শতাব্দীতে ফেসবুক ব্যবহার করেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া বেশ দুষ্কর কাজ হয়ে যাবে। পুরো পৃথিবীই ডিজিটাল পৃথিবী হয়ে গেছে। তাই সবারই অন্তত একটা করে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থাকবে এটাই স্বাভাবিক।

ফেসবুক মূলত এক ধরনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম যা মানুষের মাঝে সামাজিকতা দৃঢ় করতে সহায়ক। কিন্তু আপনি আপনার ফেসবুক আইডিটি খুঁজে দেখবেন এমন কিছু ফেসবুক ফ্রেন্ড রয়েছে যারা আপনার জীবনের জন্য অপ্রয়োজনীয়।

আপনি হয়তো বা নিজেই জানেন না কোন ঝোঁকের মাথায় তাকে আপনি ফ্রেন্ড বানিয়ে ফেলেছেন। তাই জেনে নিন এমন কয়েকটি ফেসবুক ফ্রেন্ড সম্পর্কে যাদের আনফ্রেন্ড করা উচিৎ এই মুহুর্তেই। কেননা এরা বিরক্তিকর, আপনার যোগ্য নয় এবং বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দারুণ ঝামেলাও তৈরি করতে পারে। নিজেকে নিরাপদ রাখতে এদের এড়িয়ে চলাই মঙ্গলজনক।

১। অপরিচিত কেউ নাঃ

এমন অনেক ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট হয়ত আপনি এক্সেপ্ট করেছেন যাদের আপনি একেবারেই চেনেন না বা জানেন না। কোন মিউচুয়াল ফ্রেন্ডও নেই। এমন কেউ যদি আপনার ফ্রেন্ড হয়ে থাকে তবে তাদের আনফ্রেন্ড করাটাই শ্রেয়। কেননা আপনাকে চেনেন এমন ফ্রেন্ড আপনাকে যেভাবে মূল্যায়ণ করবেন তারা সেভাবে নাও করতে পারে। অবশ্য নারী এবং পুরুষের ক্ষেত্রে বিষয়টি একেবারেই ভিন্ন। বিরক্তের বিষয়টি বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তৈরি হয় পুরুষদের কাছ থেকে।

২। অযোগ্য ফ্রেন্ডঃ

খেয়াল করে দেখুন এমন গুটি কয়েক ফ্রেন্ডকে হয়ত আপনি এক্সেপ্ট করেছেন যাদের যোগ্যতা একেবারেই আপনার পর্যায়ে নয়। অর্থাৎ যেকোনো ধরনের যোগ্যতার দিক থেকে সে বা তারা আপনার ফ্রেন্ড সার্কেলের উপযুক্ত নয়। এমন ফ্রেন্ডদেরকে অবশ্যেই আনফ্রেন্ড করা উচিৎ। অযথা মেলামেশা বাড়াবার আগেই।

৩। ফেক ফ্রেন্ডঃ

আজকাল ফেইক আইডির সাথে বন্ধুত্ব করেছেন এমন অনেকেই আছেন। এরা আসলে ছদ্মবেশী হয়ে থাকে। এই ধরনের অ্যাড্রেসগুলো খুঁজে বের করতে ভালোভাবে লক্ষ্য করুন এদের ফ্রেন্ড সার্কেলটি বা ফটো গ্যালারিটি। খুব কম তথ্যসম্পন্ন আইডিগুলোই সাধারণত এই ধরনের ফেইক আইডি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এদেরকে খুঁজে বের করে আনফ্রেন্ড করুন।

৪। ধর্ম গোঁড়া ফ্রেন্ডঃ

এমন অনেক আইডির সাথে হয়ত আপনার পরিচয় হবে যারা অনেকটাই ধর্ম গোঁড়া মানসিকতা ধারণ করেন। আসলে এদের ভালোভাবে চেনার উপায় নেই। তবে এরা আপনার যেকোনো স্ট্যাটাসে ধর্মকে হাতিয়ার হিসেবে নিয়ে অযথা কতগুলো কমেন্ট করতে পারেন। এমন সন্দেহপ্রবণ যেকোনো ফ্রেন্ডকে আপনি আপনার ফ্রেন্ডলিস্ট থেকে বের করে দিতে পারেন।

৫। বন্ধুর প্রাক্তন প্রেমিক/প্রেমিকাঃ

আপনার বন্ধুর প্রাক্তর প্রেমিক বা প্রেমিকাকে অবশ্যই আপনার ফেন্ডলিস্ট থেকে ডিলিট করে দেবেন। কারণ যেখানে আপনার বন্ধুটি তার সাথে আর সম্পর্ক রাখেননি সেখানে আপনার তার সাথে ফ্রেন্ডশিপ রাখা মানে আপনার বন্ধুটির ক্ষতি বা বন্ধুটির মনক্ষুণ্ন হওয়া।

৬। নিজের প্রাক্তন প্রেমিক বা প্রেমিকাঃ

এই বিষয়টিও একই ধরনের অর্থাৎ আপনার বন্ধুর প্রাক্তন প্রেমিক বা প্রেমিকার সাথে বন্ধুত্ব না রাখার মত বা এর চেয়েও জটিলতর। তাই অন্তত এমন কাউকে আপনার ফ্রেন্ডলিস্টে না রাখাই শ্রেয়।

৭। অসুস্থ মানসিকতার ফ্রেন্ডঃ

ফেসবুকে এমন অনেক ফ্রেন্ড রয়েছে যারা অসুস্থ মানসিকতার হয়ে থাকেন। এরা নিজের প্রোফাইলে বাজে ধরনের অ্যাকটিভিটিস করে থাকেন। এই ধরনের অসুস্থ ফ্রেন্ডদের থেকে দূরে থাকাই ভালো।

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Posts 4118
Post Views 225