MysmsBD.ComLogin Sign Up

যে গ্রামকে বলা হয় 'আত্মহত্যার গ্রাম'

In ভয়ানক অন্যরকম খবর - May 10 at 1:26pm
যে গ্রামকে বলা হয় 'আত্মহত্যার গ্রাম'

এ বছরের শুরু থেকে এখনও পর্যন্ত, পাঁচ মাসে এই গ্রামে আত্মহত্যা করেছেন মোট ৮০ জন। গত বছর ৩৮১ জন আত্মহত্যা করেছেন। মাস দুয়েক আগে এই গ্রামের পঞ্চায়েত প্রধান সরপঞ্চ জীবন নিজেই গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন। এরপরই তার ভাই রাজেন্দ্র সিসোডিয়া সরপঞ্চ হয়েছেন। তার মা ও ভাইও আত্মহত্যা করেছেন কিছুদিন আগে।
কোনও দুষ্ট আত্মার কাজ বলেই মনে করছেন গ্রামবাসীরা।

এমনটাই জানিয়েছেন, খোদ সরপঞ্চ রাজেন্দ্র সিসোডিয়া। একরকম দুঃস্বপ্নের মধ্যে দিয়েই দিন কাটাচ্ছে মধ্যপ্রদেশের খারগোন জেলার বড়ি গ্রাম। গ্রামে বাস করে মোট ৩২০টি পরিবার। জনসংখ্যা মোট ২৫০০। তার মধ্যে এতগুলো আত্মহত্যার ঘটনা রীতিমতো চিন্তায় ফেলেছে গ্রামবাসীদের।

পুলিশ সুপার অমিত সিং জানান, এ বছর ৮০ জনের আত্মহত্যার ঘটনায় সবাই কোনও না কোনও শয়তান বা অপদেবতাকেই দায়ী করছেন।
মনোবিদ ডা. শ্রীকান্ত রেড্ডি মনে করছেন, কোনও ডিপ্রেশনের কারণেই এই আত্মহত্যা। মারাত্মক পরিমাণে কীটনাশক দেয়ার ফলে এই ঘটনা বলেও ব্যাখ্যা করেছেন তিনি। যদিও কোনও স্পষ্ট কারণ এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি। তিনি আরও বলেন, আর্থিক কারণ ছাড়াও অনেক কারণ থাকে ডিপ্রেশনের।

একসময় চীনের একটি গ্রামে দেখা গিয়েছিল যে, একটি বিষাক্ত কীটনাশক ব্যবহার করা হচ্ছে যা ডিপ্রেশনের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর মানুষ বুঝতে না পেরে অপদেবতাকে দায়ী করছেন।

এই কারণ খতিয়ে দেখতে একটি কমিটিও গঠন করা হয়েছে। গ্রামবাসীদের কাউন্সেলিং প্রয়োজন বলে মনে করছেন চিকিৎসকরা। ইতোমধ্যেই গ্রামে মদের বিক্রি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ভারতের বেশ কয়েকটি পিছিয়ে পড়া গ্রামের মধ্যে এটি অন্যতম। এখানে একাধিক কুসংস্কার কাজ করে।

Googleplus Pint
Md Sobuj Ahmed
Posts 217
Post Views 855