MysmsBD.ComLogin Sign Up

Search Unlimited Music, Videos And Download Free @ Tube Downloader

কোন ধরনের পাত্রদের নাকচ করে দেয় মেয়েরা?

In লাইফ স্টাইল - May 06 at 9:11am
কোন ধরনের পাত্রদের নাকচ করে দেয় মেয়েরা?

বিবাহযোগ্য হয়ে গেলেই পাত্র-পাত্রীর খোঁজ শুরু হয়ে যায়। কেউ কেউ নিজে দেখে বিয়ে করে নেয়। বাকিরা আবার সেই রিস্কেই যায় না। বাড়ির গুরুজনদের উপর বিষয়টা ছেড়ে রাখে। তাই শুরু হয় খোঁজ। যবে থেকে ইন্টারনেটের দাসত্ব গ্রহণ করেছে মানুষ, পাত্র-পাত্রী দেখার কাজটাও সেখানেই সেরে ফেলছে।

তার জন্য রয়েছে বিভিন্ন ম্যাট্রিমোনিয়াল সাইট। অনেকেরই নিশ্চিন্ত বিয়ে হয়েছে ইন্টারনেটকে ভরসা করে। তবে সেই সব কাপলের সংখ্যা কম। বেশিরভাগই ভীষণ বিপদে পড়েছে। এবং বিপদে পড়েছে পাত্রীরাই বেশি। কেননা, ম্যাট্রিমোনিয়াল সাইটে অধিকাংশ পাত্রীর অ্যাকাউন্ট নির্ভেজাল হলেও, পাত্রদের অনেকেরই নাকি অ্যাকাউন্টে গলদ!

কেউ স্রেফ ফ্লার্ট করার জন্য অ্যাকাউন্ট খোলে, কারোর অ্যাকাউন্টটাই নাকি ফেক। তবে ভুক্তভোগী পাত্রীরা আর বোকামোয় পা বাড়ায় না। অনেক দেখেশুনে তবেই নির্বাচন করে পাত্রদের। তারা এখন জেনে গেছে কাদের প্রথমেই বাদ দিতে হবে।

যে পাত্রের অ্যাকাউন্ট খোলে তার বাবা-মা
ছেলের বিয়ে করার বিন্দুমাত্র শখ নেই। কিন্তু বাবা-মা নাছোড়বান্দা। জোর করেই চলেছে। এমনকী ছেলেকে লুকিয়ে অ্যাকাউন্টও খুলে ফেলেছে ম্যাট্রমোনিয়াল সাইটে। এমন অ্যাকাউন্ট কিন্তু এক ঝটকায় মেয়েরা নাকচ করে দেয়। কারণ তারা বুঝে যায় এই অ্যাকাউন্টের সঙ্গে ছেলের কোনও যোগ নেই। বাবা-মায়ের প্রচেষ্টা যায় বিফলে।

মতলব অন্য
কোনও কোনও ছেলে মনে করে মেয়ে পটানোর আদর্শ স্থান হল ম্যাট্রিমোনিয়াল সাইট। সুবোধ পাত্রটি সেজে সেখানে হানা দেয়। কিন্তু বারংবার ঠকে মেয়েরা সব চিটিংবাজি ধরতে শিখে গেছে। আজকাল সেই সব ফাঁদে তারা আর পা বাড়ায় না।

ফেক প্রোফাইল
অনেক পুরুষ নিজের সম্পর্কে ও পরিবারের সম্পর্কে মিথ্যে কথা লিখে ফেক প্রোফাইল বানায়। বলে নাকি বাড়ি প্যারিসে, চাকরি জার্মানিতে, পরিবার অ্যামেরিকায়। আসলে এগুলো সব মিথ্যে, সব ভাঁওতা। এমনকী, প্রোফাইল পিকচারটাও কোথাও থেকে ঝাঁপা।

বন্ধুটাইপ পাত্র
এরা খুব কুল মানসিকতা সম্পন্ন। কথা শুরু করে “Hey” বলে। ফলে কন্যে ভেবে নেয়, ছেলে যথেষ্ট সিরিয়াস নয়। বিয়েশাদির ব্যাপারে এর সঙ্গে না এগোনোই ভালো।

রাঁধুনি খোঁজা পাত্র
জীবনসঙ্গিনী কম, বাড়ি সামলানোর জন্য লোক খোঁজে এরা। এমন কেউ যে জামা কাপড় কেচে দেবে, রান্না করে মুখের সামনে তুলে ধরবে, বাড়িটা পরিষ্কার করে টিপটপ রাখবে। তার উপর কন্যেকে হতে হবে সুন্দরী, ফর্সা, শিক্ষিতা। বর্তমানে চাকুরিরতা হলে আরও ভালো, কিন্তু বিয়ের পর চাকরি ছেড়ে দিতে হবে। মানে, পারফেক্ট হোমমেকার হতে হবে আরকী। আজকালকার মেয়েরা কিন্তু তাতে রাজিই হবে না। সুতরাং, এমন পাত্রের প্রোফাইলও কিন্তু নাকচ হয়ে যায় আধুনিকারদের কাছে।

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Posts 3842
Post Views 420