MysmsBD.ComLogin Sign Up

আইপিএলের যে রেকর্ডগুলো এখনো কেউ ভাঙতে পারেনি

In ক্রিকেট দুনিয়া - May 01 at 8:06pm
আইপিএলের যে রেকর্ডগুলো এখনো কেউ ভাঙতে পারেনি

চলছে ভারতের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট আইপিএলের নবম আসর। বিশ্ব ক্রিকেটকে বদলে দেওয়া এই টুর্নামেন্টের পালকে প্রতিনিয়তই যোগ হচ্ছে নজরকাড়া বিভিন্ন রেকর্ড।

রেকর্ড আসলে অনেকটা ভাঙ্গা-গড়ার খেলা। একটি নতুন রেকর্ড হওয়া মাত্রই অপেক্ষার পালা শুরু হয় কখন এটি ভেঙ্গে তৈরি হবে অন্য আরেকটি রেকর্ড।

কিছু রেকর্ডের স্থায়িত্ব যেমন কম তেমনি ভাঙ্গাও অপেক্ষাকৃত সহজ। আবার কিছু রেকর্ড ভাঙ্গা বেশ কঠিন। যেমন- আইপিএলে গেইলের দ্রুততম শতক, সর্বোচ্চ সংখ্যক শতক কিংবা অমিত মিশ্র’র তিন হ্যাটট্রিক। এগুলো হয়তো যেকোন সময় ভেঙ্গে যেতে পারে। কিন্তু এর বাইরেও আবার কিছু রেকর্ড থাকে অতিমানবীয়, যেগুলো ভাঙা পারতপক্ষে অসম্ভব মনে হয়। সেগুলো ভাঙতে দরকার হিমালয়সম প্রচেষ্টা।

★ চলুন দেখে নেয়া যাক সেরকমই কিছু আইপিএল রেকর্ড....

১. ক্রিস গেইলের ১৭৫ :
১৭৫ রানের ইনিংস একদিনের ক্রিকেটেও খুব বেশি ব্যাটসম্যানের ব্যাটে দেখা যায় না। কিন্তু এই জ্যামাইকান অতিমানব টি-টোয়েন্টিতেই করেছেন অবিশ্বাস্য ১৭৫ রান। ২০১৩ সালে আইপিএলের ষষ্ঠ আসরে পুনে ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে এই রান করতে গেইল খরচ করেন মাত্র ৬৬ বল। ১৭ টি ছয় আর ১৩ টি চারে সাজানো এই ইনিংস খেলার পথে গেইল ভেঙেছেন টি-টোয়েন্টিতে এক ইনিংসে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান, দ্রুততম সেঞ্চুরি ও সবচেয়ে বেশি ছক্কার রেকর্ড।

টি-টোয়েন্টিতে ১৭৫ রানের ইনিংস নিঃসন্দেহে ক্রিকেটের দূরহ কাজগুলোর একটি। ক্রিস গেইলের এই রেকর্ড অনেকদিন টিকে থাকবে বলাই যায়।

২. সোহেল তানভীরের ৬ উইকেট :
আইপিএলের প্রথম আসরের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি সোহেল তানভীরের দূর্দান্ত বোলিংয়ে সেবার চ্যাম্পিয়ন হয় তার দল রাজস্থান রয়্যালস। টুর্নামেন্টের ইতিহাসে প্রথম ‘পার্পল ক্যাপ’ জয়ী তানভীরের আর আইপিএলে খেলা না হলেও ওই আসরেই গড়া তার অনন্য এক রেকর্ড এখনো অক্ষত বহাল তবিয়তে। গ্রুপপর্বে চেন্নাই এর বিপক্ষে ৪ ওভারে মাত্র ১৪ রান খরচায় ৬ উইকেট নেন এই পাকিস্তানি পেসার। তার রেকর্ড ভাঙ্গা তো দূরের কথা এখনো পর্যন্ত ৬ উইকেটই নিতে পারেনি আর কোন বোলার।

৩. সুরেশ রায়নার একটানা ম্যাচ খেলার রেকর্ড :
১৩৩ ম্যাচ খেলে ৩৪.২৭ গড়ে ৩৮৭৩ রান নিয়ে আইপিএলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক বর্তমানে গুজরাট লায়ন্সের অধিনায়ক সুরেশ রায়না।ভিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মা তার এই রেকর্ডের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেললেও তার অন্য একটি রেকর্ড বর্তমান সময়ে খেলা খেলোয়াড়দের পক্ষে ভাঙা প্রায় অসম্ভব। ২০০৮ সালে চেন্নাইয়ের হয়ে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে আইপিএল ক্যারিয়ার শুরুর পর থেকে বর্তমান ২০১৬ আসরে নতুন দল গুজরাট লায়ন্সের সর্বশেষ ম্যাচসহ প্রতিটি ম্যাচে মাঠে নেমেছেন সুরেশ রায়না। যদিও ধারনা করা হচ্ছে এবারের আসরে কিছু ম্যাচ মিস করতে পারেন তিনি। আগত প্রথম সন্তানের জন্ম উপলক্ষেই তৈরি হয়েছে এমন সম্ভাবনা। বর্তমান সময়ে যেখানে অহরহ-ই ইনজুরি, অফফর্ম ইত্যাদি কারণে দল থেকে ছিটকে পড়েন ক্রিকেটাররা সেখানে এই রেকর্ড নিঃসন্দেহে রাজত্ব করবে বহুদিন।

৪. রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ :
সম্ভবত এক ম্যাচে এত রেকর্ড আর কখনো দেখেনি আইপিএল। বলছি ২০১৩ সালের ২৩ এপ্রিল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বনাম পুনে ওয়ারিয়র্সের ম্যাচের কথা। ইতিপূর্বে উল্লিখিত গেইলের ১৭৫ রানও এই ম্যাচেই হয়েছিল। দিলশানের ৩৬ বলে ৩৩ রানের ধীরগতির ইনিংস সত্বেও গেইল ঝড়ের পাশাপাশি ভিলিয়ার্সের ১২ বলে ৩১ রানে ভর করে ২৬৩ রানের বিশাল সংগ্রহ পায় বেঙ্গালুরু। আইপিএল তো বটেই এটি টি-টোয়েন্টির ইতিহাসেই সর্বোচ্চ দলীয় রান। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৬০ আর আইপিএলে ২৪৬। এই ইনিংসটি সর্বোচ্চ আসনে অনেকদিন টিকে যাবে, এর পক্ষে আপনি বাজি ধরতেই পারেন।

৫. গেইলের এক ওভারে ৩৭ রান :
গেইল ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু নিয়ে আরো একটি রেকর্ড কিন্তু এবার অন্য আরেকটি ম্যাচে। ২০১১ সালে বেঙ্গালুরুর হয়ে প্রথমবারের মতো আইপিএল খেলতে নামেন গেইল। ঐ আসরেই তখনকার দল কোচি টাস্কার্সের বিপক্ষে প্রশান্ত পরমেশ্বরণের বলে এক ওভারে ৩৬ রান তোলেন গেইল। বোলার মাঝে একটি নো বল করলে মোট রান দাঁড়ায় এক ওভারে ৩৭। নো বলে সহ মোট ছক্কার মার ছিল ৪ টি। আর চারের মার ছিল তিনটি।

এক ওভারে ৩৬ রান ক্রিকেটবিশ্ব খুব কমই দেখেছে আর সেখানে ৩৭ রান তো ক্রিকেটের বিরল ঘটনাগুলোর একটি। সম্ভবত এই রেকর্ড চিরকাল টিকে যাবে বললেও খুব একটা অত্যুক্তি করা হবে না।

Googleplus Pint
Anik Sutradhar
Posts 7007
Post Views 1236