MysmsBD.ComLogin Sign Up

কুৎসিত পুরুষকেই কেন বেশি পছন্দ সুন্দরী মেয়েদের!

In লাইফ স্টাইল - Apr 20 at 5:44pm
কুৎসিত পুরুষকেই কেন বেশি পছন্দ সুন্দরী মেয়েদের!

বাঁদরের গলায় মুক্তোর মালা হলেও, এটাই ধ্রুব সত্য যে কোনও কোনও সুন্দরীর কুৎসিত দেখতে পুরুষকেই পছন্দ হয় বেশি। আশপাশের তামাম হ্যান্ডসাম হাঙ্কদের হাতছানি এড়িয়ে তাঁদের মন ছুঁয়ে যায় রূপহীন পুরুষরাই। সেই দেখে সুশ্রী পুরুষদের বুক পোড়ে। মনে মনে দুষতে থাকেন অনন্যার এমন নিষ্ঠুর বিচারকে। কেন এমন পছন্দ? কী কারণ? অর্থ, প্রতিপত্তি নাকি স্রেফ যৌনসুখ! তাঁরই উত্তর জেনে নিন –


প্রেমিক অসুন্দর হলে প্রথম থেকেই তাঁর মনে হবে হাতে চাঁদ পেয়েছেন। সেই চাঁদকে তো আর অবহেলা করলে চলবে না। ফলে সুন্দরী প্রেমিকার দেখভালেও কোনও ত্রুটি থাকবে না প্রেমিকের। সেই কারণেই অনেকসময় অসুন্দর পুরুষের হাতে হাত রাখেন অনেক রূপবতী।

কোনও কোনও রূপবতী চান তাঁর প্রেমিকপ্রবর অন্য কোনও নারীর দিকে দৃষ্টিপাত করবেন না। তাঁর দিকে চেয়েই কাটিয়ে দেবেন জীবন যৌবন। রূপবান হলে যে মুশকিল! বাকি সুন্দরীরা হাঁ করে তাকিয়ে থাকবেন প্রেমিকের দিকে। না চাইতেও প্রেমিক সেই আহ্বানে সারা দিয়ে ফেলবেন কখনও সখনও। তখন ভারী সমস্যায় পড়বেন রূপসি। কিন্তু প্রেমিক যদি অসুন্দর হন, কোনও নারীই তাঁর আগুপিছু ঘুরঘুর করতে পারবে না। একজন রূপসিকে নিয়েই তুষ্ট হবে তাঁর জীবন।

অসুন্দর পুরুষকে বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে আরও একটি কারণ হল তাঁর অর্থ, ক্ষমতা ও প্রতিপত্তি। কোনও পুরুষের ব্যাঙ্কব্যালেন্স যদি কোটিতে হয় বা তাঁর চাকরিবাকরি যদি তেমনই দমদার হয়, রূপের দিকে কেউই আর তেমন চাইবে না। ঠাকুমা একবার বলেছিলেন, পুরুষের রূপ থাকে তাঁর সিন্দুকে! ষোলোআনা খাঁটি কথা। দেখেন না অসুন্দর শিল্পপতিরা কেমন ডাকসাইটে মডেল বা অভিনেত্রীদেরও পতি। খালি বিখ্যাত নারীদের দোষ দিয়ে কী হবে? পাড়ার ছাপোষা কার্তিক ঠাকুরটিও যে এ ব্যাপারে ডাহা ফেল। কবে থেকে লুকিয়ে লুকিয়ে পাশের বাড়ির সুশ্রী কন্যেকে প্রেমপত্র দিয়েছে। কিন্তু যেই না সময় এল, দেখে কিনা, বিলেতের টেকো NRI-এর সঙ্গে সাত পাকে ঘুরে মেয়ে ড্যাংড্যাং করে উড়ে গেল সাত সমুদ্র পেরিয়ে। কীসের টানে বলুন!

সত্যি বলতে গেলে, বুদ্ধিমতী মেয়েরা কোনওকালেই সুন্দর পুরুষের প্রেমে পড়ার পক্ষপাতি নন। যাঁর বুদ্ধি আছে, শিক্ষা আছে, সুন্দর ব্যবহার আছে – তেমন পুরুষকেই মন দিয়ে বসেন তাঁরা। হতে পারে জোড়িটা বেমানান, কিন্তু তাও প্রেম করে সুখ আছে এমন পুরুষকেই বেছে নেন রূপসিরা। রূপ তেমন গুরুত্ব পায় না তখন।

অসুন্দর পুরুষের সঙ্গে প্রেম করলে সবক’টা বলই নিজের কোর্টে থাকে। রূপসির এটাই উপলব্ধি, যে প্রেমিক তাঁর রূপের কারণে এবং নিজের অসুন্দর হওয়ার জ্বালায় তাঁকে ছেড়ে যেতে চাইবেন না। ফলে, ব্রেকআপের আশঙ্কা থাকে না বললেই চলে।

অসুন্দর পুরুষের সঙ্গে প্রেম করার আরও একটি কারণ হল আপারহ্যান্ড পাওয়া। অতি সুন্দরী প্রেমিকার উপর ছড়ি ঘোরানো সহজ কাজ নয়। প্রেমিকা স্বাভাবিকভাবেই দেবীর আসনে বসে যাবেন। কেননা, প্রত্যেক নারীই চান, তাঁর প্রেমিক তাঁকে পুজো করুন।

সবক্ষেত্রে সত্য না হলেও, কিছু রূপসির বদ্ধমূল ধারণা রূপবান পুরুষরা বুঝি এক প্রকার দুশ্চরিত্র। রূপসিরা মনে করেন, মহিলা পরিবেষ্টিত হয়ে থাকতেই বোধহয় বেশি পছন্দ করেন রূপবানরা। অনেকটা সেই কারণেও রূপহীন পুরুষের প্রেমপ্রস্তাবে রাজি হয়ে যান তাঁরা।

Googleplus Pint
Asifkhan Asif
Posts 1365
Post Views 136