MysmsBD.ComLogin Sign Up

যে খাবারে হার্ট থাকে সুস্থ

In সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস - Nov 17 at 8:30am
যে খাবারে হার্ট থাকে সুস্থ

বর্তমানে হৃদরোগের প্রকোপ বেড়েই চলেছে। সারা বিশ্বে প্রতিদিন শুধুমাত্র হার্ট অ্যাটাকের কারণে লাখ লাখ মানুষ মারা যাচ্ছে। আপনার হার্ট সুস্থ রাখতে হলে খাদ্যাভ্যাস সম্পর্কে সচেতন হতে হবে।

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, কিছু খাদ্য আমাদের হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয় আবার কিছু খাদ্য হৃৎপিণ্ডের জন্য উপকারী। হার্ট অ্যাটাক মানুষকে পঙ্গু ও বিকলাঙ্গও করে দেয়। তাই আপনার খাদ্যে ক্যালোরি নিয়ন্ত্রণ, বিশেষ খাবার খাওয়া নিয়ন্ত্রণ ও আহারে সঠিকভাবে সবরকম খাদ্য যোগ করা যেতে পারে।

সুষম খাদ্য আপনার রক্তচাপ এবং কলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে যার ফলে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে। পুষ্টিকর আহার সুস্থভাবে আপনার ওজন কমাতেও সাহায্য করে।

সুস্থ হার্ট, ভাল সুষম খাদ্যের ওপর নির্ভর করে। একটি সুষম খাদ্য শুধুমাত্র হৃদরোগের আশঙ্কা কমায় তাই নয় এটি ক্যান্সার এবং অন্যান্য মৃত্যুব্যাধি রোধ করে।

কখনও কখনও সুস্থ হার্টের জন্য নির্দিষ্ট খাবারের সম্বন্ধে সচেতন হয়েও অভ্যাসগত কারণে তা পরিবর্তন করা খুব কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। যাইহোক, চিন্তার কিছু নেই, এখানে সুস্থ হার্টের জন্য কিছু সহজ উপায় দেয়া হল....

ফল এবং সবজি
ফল ও সবজি খনিজ পদার্থ, ভিটামিন এবং ফাইবার সমৃদ্ধ , এতে কম ক্যালোরি থাকে। সুস্থ হার্টের জন্য সবজি ও ফল অন্যতম, কারণ এতে এমন উপাদান আছে যা কার্ডিওভাসকুলার রোগ প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। আপনার দৈনন্দিন খাদ্যের মধ্যে এমন রেসিপি যোগ করুন যাতে ফল ও সবজির প্রাধান্য থাকে।

উদাহরন স্বরূপ, আপনি সবজি ও ফলের স্যালাড, সবজির তরকারি, সবজির সুপ, ফলের কাস্টার্ড ইত্যাদি করতে পারেন।

শর্করা
শর্করা বা কার্ব আপনার শরীরে শক্তি যোগায়। কার্ব দুই ধরণের আছে- ভাল কার্ব বা খারাপ কার্ব । সোডা, চিনি, ডেজার্ট, পাই, পেস্ট্রি, ক্যান্ডি, কুকিজ, সাদা রুটি, সাদা চাল, সাদা পাস্তা এবং কৃত্রিম সিরাপ খারাপ কার্বের আওতায় পড়ে। খারাপ কার্ব আপনার খাদ্যে পুষ্টির পরিবর্তে ক্যালোরি যোগ করে।অতঃপর, হৃদরোগের ঝুঁকি কমানোর জন্য এসব খাবার এড়িয়ে চলা উচিত।

সুস্থ হৃদয়ের জন্য সবচেয়ে কার্যকর টিপস হল শুধুমাত্র ভাল কার্ব আহারে যোগ করা। ভাল কার্ব চিনির অনুর চেইন দ্বারা গঠিত এবং আপনার শরীর তাদের ব্যবহার করার জন্য ভেঙে ফেলতে বেশি সময় নেয়।

ফলস্বরূপ, তারা আপনার শরীরকে আরও বেশি শক্তি যোগায়। ভাল কার্বে বাদামী রুটি, গম, পাস্তার মত সমগ্র শস্য অন্তর্ভুক্ত। গবেষণায় বলে যে হৃদরোগের আতঙ্ক এড়াতে এই সব খাদ্য প্রয়োজন।

হোল গ্রেন
ঢেঁকিছাটা লাল চাল ও লাল আটায় (হোল গ্রেন) রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। আপনার পরিশ্রুত শস্য খাবারের বদলে হোল গ্রেন খাবার যেমন : বার্লি, বাদামি চাল, ওটমিল, গমের আটা, হোল গ্রেন রুটি, কিনবাহ, কুসকুস ইত্যাদি যোগ করুন।

তিসি আরেকটি ভাল হোল গ্রেনের উদাহরণ। এগুলি ওমেগা -3 ফ্যাটি অ্যাসিড এবং ফাইবার সমৃদ্ধ যা রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে পারে।

একটি মিক্সিতে তিসি গুঁড়ো করে নিন। এক চা চামচ এই গুঁড়ো তিসি আপেলের সস, দই এবং ব্রেকফাস্ট সিরিয়ালের মত আপনার রেসিপির মধ্যে মিশিয়ে নিন।

লবণ
লবণ থেকে দূরে থাকা নিঃসন্দেহে একটি অন্যতম উপায় সুস্থ হার্টের জন্য। অতিরিক্ত লবণ বা আপনার খাদ্যের মধ্যে বাড়তি সোডিয়াম আপনার রক্তচাপ বাড়াতে পারে। এতে হৃদরোগের আশঙ্কা বাড়তে পারে।

প্রক্রিয়াজাত বা টিনজাত খাবার যেমন
হিমায়িত খাবার এবং স্যুপে অতিরিক্ত সোডিয়াম থাকে যা আপনার হৃদয় সুস্থ রাখতে এড়িয়ে চলা উচিত। বাড়িতে সূপ তৈরি করুন যেখানে আপনি লবণের পরিমাণ কম দিতে পারবেন। এছাড়া বাজারে কিছু লবণ পাওয়া যায়, যাতে সোডিয়াম কম পরিমাণে থাকে। তা আপনি ব্যবহার করতে পারেন।

Googleplus Pint
Anik Sutradhar
Posts 6714
Post Views 122