MysmsBD.ComLogin Sign Up

রাতে ভালো ঘুমের জন্য যা করতে হবে

In লাইফ স্টাইল - Nov 14 at 1:15pm
রাতে ভালো ঘুমের জন্য যা করতে হবে

বেশির ভাগ মানুষ জানেন স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে হলে সঠিক খাবার খেতে হয় এবং সঠিক ব্যায়াম করতে হয়। কিন্তু ভালো ঘুমের জন্য কী করতে হবে? আমরা আমাদের জীবনের এক তৃতীয়াংশই ঘুমিয়ে কাটাই। আর স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য ঘুম খুবই জরুরি। কিন্তু আমাদের অনেককেই ভালো ঘুমের জন্য রীতিমতো সংগ্রাম করতে হয়।

প্রতি পাঁচজনের একজন লোক বলেছেন, তারা সপ্তাহে অন্তত একদিন নিদ্রাহীনতার সমস্যায় ভোগেন। যার ফলে ঘুম থেকে জাগার পর তারা ক্লান্ত ও পরিশ্রান্ত অনুভব করেন। সুতরাং আপনি কীভাবে আরো সফলভাবে ঘুমাতে পারেন?

আপনার আসলে কতটা ঘুম দরকার?
আপনি যদি ঘুম থেকে ওঠার পর ক্লান্তি বোধ করেন তাহলে বুঝে নেবেন রাতে আপনার ভালো ঘুম হয়নি। এই কৌশলগুলো অবলম্বন করে আপনি নির্ধারণ করতে পারবেন আপনার আসলে ঠিক কতটুকু ঘুম দরকার।

জাদুকরী সংখ্যাটি
আপনার ঠিক কতটুকু ঘুম দরকার একমাত্র আপনিই তা সঠিকভাবে নির্ধারণ করতে পারেন। আপনি যদি ক্লান্তি বোধ করেন, তাহলে বুঝবেন যে আপনার আরো ঘুম দরকার। কিন্তু বিজ্ঞান আরো সুনির্দিষ্ট দিক নির্দেশনা দেওয়ার কথা বলে।

যারা প্রতিরাতে অন্তত ৭ ঘণ্টা করে ঘুমায় তারা অনেক বেশি স্বাস্থ্যবান এবং বেশি দিন বাঁচেন। ৭ ঘণ্টার কম ঘুমালে স্থূলতা, হৃদরোগ, মানসিক অবসাদ এবং রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়ার মতো সমস্যার সৃষ্টি হয়।

তবে ব্যক্তিভেদে ঘুমের প্রয়োজনীয়তায় ভিন্নতা আছে। বয়স, বংশগতি, জীবনযাপনের ধরন এবং পরিবেশ এ সবকিছুই কারো ঘুমের প্রয়োজনীয়তার ক্ষেত্রে ভূমিকা পালন করে থাকে। তবে আপানার ঠিক কতটুকু ঘুম দরকার তা নির্ধারিত হয় আপনার বংশগতির বৈশিষ্ট্য দিয়ে এবং আপনার অভ্যাসও এ ক্ষেত্রে শক্তিশালী ভুমিকা পালন করে।

নিজেকে জিজ্ঞেস করুন : 'আপনার কি ঘুম পাচ্ছে?'
এই একটি সরল প্রশ্নই সবচেয়ে ভালো উপায় আপনি পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমাতে পারেছেন কিনা তা নির্ধারণের। আপনি যদি প্রায়ই কর্মস্থলে সকাল বা সন্ধ্যার দিকে ক্লান্তি বোধ করেন, দিবানিদ্রার জন্য কাতর হয়ে ওঠেন বা ঘুমিয়ে পড়েন তাহলে বুঝবেন যে আপনার দেহ আপনাকে এই সঙ্কেত দিচ্ছে, আপানি যথেষ্ট ঘুমাতে পারছেন না।

আপনি যদি প্রতিরাতে ৭ থেকে ৮ ঘণ্টা ঘুমিয়েও ক্লান্তি বোধ করেন বা ঘুম কম হয়েছে বলে অনুভব করেন তাহলে আপনার হয়ত ঘুমের ব্যাঘাত ঘটছে বা আপনি ঘুমের বিশৃঙ্খলায় ভুগছেন। এ জন্য আপনাকে ডাক্তারের সঙ্গে কথা বলার দরকার পড়তে পারে এবং একটি ঘুম গবেষণার মধ্য দিয়ে যেতে হতে পারে।

একটি ঘুমের ডায়েরি রাখুন
এমনকি আপনার যদি মনে হয় আপনি যথেষ্ট পরিমাণে ঘুমাতে পারছেন তবুও আপনি যদি একেবারে সাদাকালোভাবে আপনার ঘুমের প্যাটার্ন লক্ষ করেন তাহলে আপনি বিস্মিত হবেন। নতুন তৎপরতা অনুসরণকারীগুলোর কোনো কোনোটি আপনার ঘুমের প্যাটার্ন পর্যবেক্ষণ করবে। তবে আপনি নিজেও এটা সহজেই করতে পারেন। পরের সপ্তাহের জন্য, একটি ঘুম ডায়েরি রাখুন :

১. ঘুমাতে যাওয়ার এবং ঘুম থেকে জেগে ওঠার সময়টুকু লিখে রাখুন।

২. আপনি মোট কত ঘণ্টা ঘুমাচ্ছেন তা নির্ধারণ করুন। আপনি দিবানিদ্রা যাচ্ছেন কিনা বা মধ্যরাতে ঘুম থেকে জেগে উঠছেন কিনা তা নোট করে রাখুন।

৩. সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর আপনার কী অনুভূতি হয় তা নোট করে রাখুন।

সজীব এবং বিশ্বজয়ের জন্য প্রস্তুত? নাকি টলটলায়মান এবং পরিশ্রান্ত?
মনে রাখবেন শুধু একটি ঘুম ডায়েরি রাখার মাধ্যমেই আপনি নিজের ঘুমের অভ্যাসগুলো সম্পর্কে অন্তর্দৃষ্টি লাভ করতে পারবেন। আর তা ছাড়া আপনি যদি মনে করেন যে, আপনি ঘুমের সমস্যায় ভুগছেন তাহলে ডায়রিটি আপনার ডাক্তারের জন্যও বেশ সহায়ক হবে।

অ্যালার্ম ক্লক থেকে দূরে থাকুন
আপনি কি সত্যিই আপনার ব্যক্তিগত ঘুমের চাহিদাটুকু নির্ধারণ করতে চান? তাহলে এই 'ঘুম ছুটি' পরীক্ষাটি চালান। এটা করার জন্য, আপনার এমন দুটি সপ্তাহ দরকার হবে যে দিনগুলোতে আপনাকে সকাল বেলায় নির্দিষ্ট সময়ে কোথাও যেতে হবে না। আপনার চাকরিটি যদি নমনীয় হয় তাহলে আপনি যেকোনো সময় এটি করতে পারেন। অথবা আপনাকে হয়তো একটি লম্বা ছুটির জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

এই পরীক্ষার জন্য ছোট্ট একটি শৃঙ্খলা দরকার :

১. প্রতিরাতে একই সময়ে ঘুমাতে যান।

২. অ্যালার্ম ঘড়িটি বন্ধ করে রাখুন।

৩. ঘুম থেকে জেগে ওঠার সময় রেকর্ড করে রাখুন।

এমন সম্ভাবনাও আছে যে আপনি হয়ত প্রথম কয়েকদিন দীর্ঘ সময় ধরে ঘুমালেন। কারণ আপনি আগের ঘুমের ঘাটতি পূরণ করছেন। সুতরাং প্রথম কয়েক দিনের তথ্য-উপাত্ত খুব একটা কাজে লাগবেনা। কিন্তু আপনি যদি এভাবে নির্দিষ্ট সময়ে বিছানায় যান এবং নির্দিষ্ট সময়ে ঘুম থেকে জেগে ওঠেন তাহলে কয়েকসপ্তাহ যাওয়ার পরই আপনি দেখতে পাবেন যে, প্রতিরাতে আপনার দেহের কতটুকু ঘুম দরকার তার একটি কাঠামো ভেসে উঠেছে।

একবার যদি আপনি আপনার প্রাকৃতিক ঘুমের চাহিদাটি নির্ধারণ করতে পারেন তাহলে আপনার কখন জেগে উঠতে হবে সে সম্পর্কে ভাবুন। এরপর ঘুমাতে যাওয়ার জন্য এমন একটি সময় বেছে নিন যখন বিছানায় গেলে আপনি পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমিয়ে প্রাকৃতিকভাবেই জেগে উঠতে পারবেন।

Googleplus Pint
Anik Sutradhar
Posts 6989
Post Views 211