MysmsBD.ComLogin Sign Up

[Trick] Uc Browser দিচ্ছে ৪০০০টাকা করে বিকাশে। বাংলাদেশ থেকে প্রথম থেকে ৪০০০ জন পাবে ৪০০০ টাকা করে ।

শরীয়তপুরে ৯ জেএসসি পরীক্ষার্থীর ওপর হামলা!

In দেশের খবর - Nov 11 at 9:58am
শরীয়তপুরে ৯ জেএসসি পরীক্ষার্থীর ওপর হামলা!

শরীয়তপুরের সদর উপজেলার বিনোদপুর পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ জেএসসি পরীক্ষার্থীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে তুলাসার ইউনিয়নের দেওয়ান কান্দি গ্রামে হামলার শিকার হয় ওই শিক্ষার্থীরা।

ওই গ্রামের সৌদি প্রবাসী সালাম দেওয়ানের ছেলে শামিম দেওয়ান তার পাঁচ সহযোগিকে নিয়ে এ হামলা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

আহত শিক্ষার্থীদের সন্ধ্যায় শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শরীয়তপুর সদর থানা ও স্থানীয় সূত্র জানায়, শরীয়তপুর সদর উপজেলার বিনোদপুর পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর শিক্ষার্থীরা শরীয়তপুর পৌরসভায় অবস্থিত আংগারিয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষা দিচ্ছে।

ওই বিদ্যালয়ের জেএসসি পরীক্ষার্থী জান্নাতুল ফেরদৌসির বাড়ি একই উপজেলার দড়িহাওলা গ্রামে। গত এক সপ্তহ যাবৎ পরীক্ষা কেন্দ্রে আসার পথে পাশের গ্রামের শামিম দেওয়ান তাকে উত্যক্ত করতো।

বৃহস্পতিবার শারীরীক শিক্ষা ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে দেওয়ান কান্দি এলাকায় শিক্ষার্থীদের বহনকারি ইজিবাইক থামায় শামিম। এর পর সে জান্নাতুলের কাছে মোবাইল নম্বর চায়। এ সময় অন্য শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদ করলে শামিম তার পাঁচ সহযোগিকে নিয়ে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায়। তারা ৯ শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে আহত করে।

স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে বিদ্যালয়ে পৌঁছে দেয়। বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা সন্ধ্যায় তাদের শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি শিক্ষার্থীরা হল রহিমা আক্তার, সুরমা আক্তার, মীম আক্তার, জান্নাতুল ফেরদৌসি, কাওসার মাহমুদ, জসিম, সজিব সরদার, সাইফুল ও মাসুদ সরদার।

জান্নাতুল ফেরদৌসি বলেন, পরীক্ষা দিতে আসার পথে শামিম আমাকে বিরক্ত করত। ইজিবাইক থামিয়ে আমার সাথে কথা বলার চেষ্টা করত, ফোন নম্বর চাইতো। তার ভয়ে আমি পরীক্ষা শেষে অন্য সহপাঠিদের সাথে বাড়ি ফিরতাম।

বৃহস্পতিবার সে আমাদের ইজিবাইক থামালে আমার সহপাঠিরা এর প্রতিবাদ করে। তখন শামিম তার পাঁচ সহযোগিকে নিয়ে আমাদের বাঁশ ও লাঠি দিয়ে পিটিয়েছে।

শরীয়তপুরের সদর উপজেলার বিনোদপুর পাবলিক উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবুল মিয়া বলেন, শিক্ষার্থীদের ওপর বখাটেদের হামলার খবর পেয়ে বিদ্যালয়ে ছুটে আসি। শিক্ষার্থীরা ব্যাথায় কাতরাচ্ছিল। দ্রুত তাদের শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করি। আমরা থানায় মামলা দায়ের করবো। বখাটেদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি চাই।

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা সুমন কুমার পোদ্দার বলেন, আহত শিক্ষার্থীদের শরীরে লাঠির আঘাতের জখম রয়েছে। তাদের চিকিৎসা চলছে, সুস্থ হতে দুই তিন দিন সময় লাগতে পারে।

শরীয়তপুর সদরের পালং মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খলিলুর রহমান বলেন, অভিযুক্তদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ অভিযানে নেমেছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

[Trick] Uc Browser দিচ্ছে ৪০০০ টাকা করে বিকাশে। বাংলাদেশ থেকে প্রথম থেকে ৪০০০ জন পাবে ৪০০০ টাকা করে ।

Googleplus Pint
Noyon Khan
Posts 3377
Post Views 267