MysmsBD.ComLogin Sign Up

শাহজাদ ঝড়ে চিটাগংকে উড়িয়ে দিল রংপুর

In ক্রিকেট দুনিয়া - Nov 09 at 10:21pm
শাহজাদ ঝড়ে চিটাগংকে উড়িয়ে দিল রংপুর

প্রথম ম্যাচে ১৬১ রান। চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে ২৯ রানের জয়। কিন্তু ব্যাটে-বলে ব্যর্থতায় দ্বিতীয় ম্যাচেই তামিম ইকবালের চিটাগং ভাইকিংস মুখ থুবড়ে পড়ল। রংপুর রাইডার্স ৫ ওভার হাতে রেখে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারালো চিটাগংকে। ৫২ বলে হার না মানা ৮০ রানের ধ্বংসাত্মক ইনিংস খেলেছেন রংপুরের আফগান ওপেনার মোহাম্মদ শাহজাদ।

টস হেরে তামিম ইকবাল ১৬০-১৭০ রানের লক্ষ্যের কথা বলেছিলেন। কিন্তু ২ বল বাকি থাকতে ১২৪ রানে অল আউট তারা। বুধবার দিনের প্রথম ম্যাচে ১৩৩ রান করেও জিতেছিল খুলনা টাইটান্স। তাই এই ম্যাচ নিয়ে কিছু বলা যাচ্ছিল না। কিন্তু শাহজাদ-সৌম্য সরকাররা চিটাগংয়ের সংগ্রহটাকে অনেক কমই প্রমাণ করলেন।

চিটাগংয়ের তারা ঝলমলে বোলিংকে সহজে সামলে ১৫ ওভারেই জয় তুলে নিয়েছে রংপুর। এবারের বিপিএলে প্রথম ম্যাচ দাপটের জয়ে উড়ন্ত সূচনাই পেল তারা। দ্বিতীয় ম্যাচেই হারল চিটাগং।

মিরপুরে শাহজাদের মারমার-কাটকাট ব্যাটিং দেখা গেল। তার সাথে ইনিংস ওপেন করে সৌম্যও বেশ খেলছিলেন। ৭৭ রানের জুটি হয় তাদের। টাইমাল মিলসের গতির কাছে হেরে ক্যাচ দিয়ে ফেরার সময় সৌম্যর নামের পাশে ২৫ বলে ২৩ রান।

২টি ছক্কা ও ১টি চার মেরেছেন। ব্যক্তিগত ১৮ রানে শাহজাদের ক্যাচ ফেলার মূল্য দিয়েছে চিটাগং। শাহজাদ উইকেটের চার পাশে মেরে খেলেছেন। ৪১ বলে ফিফটি তার। এর ৩৮ রানই বাউন্ডারিতে।

শাহজাদের ব্যাটিংয়েই ম্যাচটা শক্ত হাতে ধরে এগিয়েছে রংপুর। চিটাগংকে তারা সুযোগই দেয়নি। শেষে তাসকিন আহমেদকে চার বলে ২টি ছক্কা ও ১টি চার মেরেছেন শাহজাদ। তার ইনিংসে ১১টি চারের মার। ছক্কা ৩টি। মোহাম্মদ মিথুন অপরাজিত ছিলেন ১২ রানে।

এর আগে চিটাগংয়ের দুই ওপেনার দলের ২১ রানের সময় ফিরেছেন। স্পিনার সোহাগ গাজী ৩ বলের মধ্যে শিকার করেছেন ডোয়াইন স্মিথ (১০) ও তামিমকে (১১)। প্রথম ম্যাচে ফিফটি করেছিলেন তামিম।

আগের ম্যাচে দুর্দান্ত ব্যাটিং করা শোয়েব মালিক হাল ধরলেন। পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান ৩২ বলে ইনিংস সর্বোচ্চ ৩০ রান করেছেন। ৪৮ রানের জুটি হলো এনামুল হক ও শোয়েবের মধ্যে। ১৬ বলে ২৫ রান এনামুলের। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে রান আউট তিনি।

এরপর ৯ রানের মধ্যে আরো ২ উইকেট হারায় চিটাগং। আরাফাত সানি তুলে নেন জহুরুল ইসলামকে (৩)। রুবেল হোসেনের প্রথম শিকার মোহাম্মদ নবি (৫)। এক রানকে ২ করতে গিয়ে সৌম্যর সরাসরি থ্রোতে রান আউট হয়েছেন শোয়েব (৩০)।

৯৩ রানে ৬ উইকেট নেই। তবে চিটাগংয়ের ব্যাটিং লাইন আপ লম্বা। জাকির হাসান, নাজমুল হোসেন মিলন ছিলেন। আব্দুর রাজ্জাকও ভালো ব্যাট করেন। লোয়ার অর্ডারের জন্য ছিল ৫.২ ওভার। কিন্তু ২ বল বাকি থাকতে অল আউট চিটাগং। তবে মূল্যবান ৩১ রান এল।

সোহাগ গাজী ও রিচার্ড গ্লেসন ২টি করে উইকেট নিলেন। রুবেল, শহীদ আফ্রিদি ও আরাফাত সানির শিকার ১টি করে। বাকি ৩টি রান আউট। ব্যাটসম্যানরা যে পুঁজি দিয়েছিলেন তা ধরে জেতার সুযোগও তৈরি করতে পারেননি চিটাগংয়ের বোলাররা। -কালের কন্ঠ

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Posts 3787
Post Views 664