MysmsBD.ComLogin Sign Up

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে খুলনার নাটকীয় জয়

In ক্রিকেট দুনিয়া - Nov 09 at 6:17pm
শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে খুলনার নাটকীয় জয়

নতুন সূচিতে ঘরোয়া লিগের সবচেয়ে জমজমাট আসর বিপিএলের ময়দানী লড়াই শুরু হয়েছে গতকালই। আজ দ্বিতীয় দিনের প্রথম ম্যাচে রাজশাহী কিংসের মুখোমুখি হয় খুলনা টাইটানস।

মিরপুর শেরে-ই-বাংলায় টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন খুলনার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। আগে ব্যাটিংয়ে নেমে আবুল হোসেন রাজুর বোলিং তোপে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৩৩ রানেই গুটিয়ে যায় খুলনা টাইটানস।

১৩৪ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে রীতিমতো বিপাকে পড়েছিল রাজশাহী কিংস। কিন্তু সেখান থেকে দলকে টেনে তোলেন মুমিনুল হক ও অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি। তারা দুজন দলকে জয়ের স্বপ্ন দেখাতে শুরু করেন। তাদের ব্যাটে ভর করে জয়ের দ্বারপ্রান্তেও পৌঁছে গিয়েছিল রাজশাহী। কিন্তু শেষ ওভারে মাহমুদউল্লাহর বুদ্ধিদীপ্ত বোলিংয়ে শেষ পর্যন্ত ৩ রানে হার মেনেছে রাজশাহী।

২ ওভার বল করে মাত্র ৬ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। শেষ ওভারেই তিনি ৩টি উইকেট শিকার করেন। জয়ের জন্য শেষ ওভারে রাজশাহীর প্রয়োজন ছিল ৭ রান। হাতে ছিল ৩টি উইকেট। কিন্তু ৪ রানের বেশি নিতে পারেনি রাজশাহী। ফলে ৩ রানের দারুণ এক জয় পায় খুলনা টাইটানস।

বল হাতে খুলনার জুনায়েদ খান ৪টি উইকেট নিয়েছেন। ৩টি উইকেট নিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। শফিউল ইসলাম নিয়েছেন ২টি।

ব্যাট হাতে রাজশাহীর মুমিনুল হক সর্বোচ্চ ৬৪ রান করেন। ৩১ রান করেন ড্যারেন স্যামি। ১০ রান করেন সামিত প্যাটেল। বাকিদের কেউ দুই অঙ্কের কোটা ছুঁতে পারেনি।

ব্যাট হাতে ৩২ ও বল হাতে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা নির্বাচিত হন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

বিপিএলের চতুর্থ আসরে এই দুটি দলই নতুন। তবে তারকা খেলোয়াড়ের উপস্থিতির কারণে খুলনার চেয়ে রাজশাহী কিংসই এগিয়ে। আজ দলটির পেসার আবুল হোসেন রাজুর দারুণ বোলিংয়ে নিজেদের ইনিংস খুব বড় করতে পারেনি খুলনা। তিনি একাই তুলে নেন ৫টি উইকেট।

আগে ব্যাট করতে নেমে খুলনার হয়ে নিকোলাস পোরান (১৪), ওয়াসেলস (৩২) মজিদ (১৫), শুভাগত হোম (৩), মাহমুদউল্লাহ (৩২), অলক কাপালী (১১) ও আরিফুল হক (১৪) রানে আউট হয়েছেন।

শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ১৮ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারায় খুলনা। এ সময় নিকোলাস পোরানকে বোল্ড করে খুলনা শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন মেহদী হাসান মিরাজ। এর পর দলীয় ৬৫ রানের মাথায় রিকি ওয়াসেলকে ফেরান আবুল হাসান। দলীয় একই রানে আক্রমনাত্মক হয়ে উঠা মাহমুদউল্লাকে ফেরান আবুল হাসান। এরপর আর কেউ বড় কোনো ইনিংস খেলতে না পারায় ১৩৩ রানেই থামে খুলনার দৌড়।

বল হাতে রাজশাহীর হয়ে আবুল হাসান রাজু সর্বোচ্চ ৫টি উইকেট নিয়ে খুলনার ইনিংসে ধস নামান। এছাড়া মেহেদী হাসান মিরাজ ও সামিত প্যাটেল একটি করে উইকেট নেন।

চার-ছক্কার জমজমাট লড়াইয়ে জমে উঠছে বিপিএলের চতুর্থ আসর। গতকাল প্রথম দিনের ম্যাচে জয় পেয়েছে চিটাগং ভাইকিংস ও ঢাকা ডায়নামাইটস। আজ প্রথম ম্যাচে নিজেদের সেরাটা জানান দিতে মুখোমুখি হয়েছে সাব্বির রহমানের রাজশাহী কিংস ও মাহমুদউল্লাহর খুলনা টাইটান্স।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজে আলো ছড়ানো তরুণ তারকা ক্রিকেটার মেহেদী হাসান মিরাজ রয়েছেন রাজশাহী কিংস শিবিরে। এছাড়া সাব্বির রহমান, মুমিনুল হক, আবুল হাসান, রনি তালুকদারের মতো তারকা ক্রিকেটারেরা রয়েছেন দলটিতে। দলটির অধিনায়কের দায়িত্বে রয়েছেন টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপজয়ী ক্যারিবীয় অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি।

অন্যদিকে বলতে গেলে বড় কোনো তারকা খেলোয়াড় নেই খুলনা শিবিরে। তারপরও অভিজ্ঞদের উপর আস্থা রাখছেন দলটির সমর্থকরা। বিপিএলে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি ওয়েষ্ট ইন্ডিজ তারকা কেভিন কুপার রয়েছেন দলটিতে । এছাড়াও রয়েছেন আন্দ্রে ফ্লেচার ও লেন্ডল সিমন্স উদিয়মান ক্রিকেটার নিকোলাস পুরান, রিকি ওয়েলস, বেন হওয়েলের মতো ক্রিকেটাররা।

খুলনা টাইটানস : মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোশাররফ হোসেন, শফিউল হোসেন, শুভাগত হোম, আরিফুল হক, আব্দুল মজিদ, অলক কাপালী, নিকোলাস পোরান, রিকি ওয়াসেলস, মোহাম্মদ আসগার ও জুনায়েদ খান।

রাজশাহী কিংস : সাব্বির রহমান, নুরুল হাসান সোহান, মেহেদী হাসান মিরাজ, মুমিনুল হক, ফরহাদ রেজা, নাজমুল অপু, আবুল হাসান রাজু, ড্যারেন স্যামি, মোহাম্মদ সামি, সামিত প্যাটেল ও উমর আকমল।

তথ্যসূত্রঃ বিডিনিউজ২৪

Googleplus Pint
Anik Sutradhar
Posts 7092
Post Views 399