MysmsBD.ComLogin Sign Up

বাচ্চাকে যৌন নির্যাতন থেকে রক্ষা করতে যেগুলো শেখাবেন!

In লাইফ স্টাইল - Nov 09 at 9:55am
বাচ্চাকে যৌন নির্যাতন থেকে রক্ষা করতে যেগুলো শেখাবেন!

দেশে শিশু যৌন নির্যাতন ও হয়রানির পরিমাণ অতীতের যেকোন সময়ের চেয়ে উদ্বেকজনক হারে বেড়ে গেছে। বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত তথ্যানুসারে জানা যায়, জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত দেশে ৩২৫ টি শিশু নির্যাতিত হয়েছে। এছাড়াও ধর্ষণ, গণধর্ষণ ও এসবের পর হত্যার ঘটনাও ঘটেছে অনেক শিশুর ভাগ্যে! কেউবা লজ্জ্বায় আত্মহত্যা করেছে। পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত হয় না এমন ঘটনাও কম নয়।

বিশ্বজুড়ে শিশু-কিশোরদের শিকার হওয়া এই যৌন নিগ্রহ-নির্যাতন ততদিন পর্যন্ত কমবে না যতদিন না কিছুকিছু লোকের দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন হয়।

মা-বাবা ও স্কুল, বাচ্চাদের সুরক্ষার জন্য সর্বদাই হয়ত যথাযথ প্রয়াস চালিয়ে থাকে। কিন্তু যদি কখনও এই সুরক্ষার ঘাটতি হয় অথবা কোন কারণে বাচ্চাকে একা স্কুলে পাঠাতে হয় তবে আপনার চিন্তার শেষ থাকে না। আজকের এই লেখায় এমন বাবা-মায়ের জন্যই থাকছে কিছু পরামর্শ।

১. প্রথমে আপনার বাচ্চার বয়স অনুসারে তাকে যৌন শিক্ষা দিন। তাহলে বাচ্চা যৌন শোষণ, নির্যাতন বা নিগ্রহের উদ্দেশ্য বুঝতে পারবে।

২. আমাদের বাবা-মায়েরা সন্তানের সাথে যৌনতা বিষয়ে ভাল বন্ধুত্ব গড়তে চান না। কিন্তু বাচ্চার সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তোলা খুবই জরুরী। এতে বাচ্চা আপনার সাথে কথা বলতে ভয় পাবে না। ফলশ্রুতিতে বাচ্চা কারও অসৎ উদ্দেশ্যে ভীত হলে অবশ্যই আপনাকে বলবে।

৩. আপনার বাচ্চার সাথে যৌন নির্যাতনের বিষয়ে খোলাখুলি কথা বলবেন। তাকে বোঝাবেন, যদি এসব বিষয়ে কোন সমস্যা হয় তবে তা আপনাকে বলাতে তার কোন ভয় ও দোষ নেই।

৪. আপনার বাচ্চাকে নিরাপদ থাকার উপায় বলে দিবেন। তাকে বলবেন অচেনা ব্যক্তির কাছ থেকে কিছু না নিতে, অপরিচিত কারো সাথে কোথাও না যেতে। তাকে কেউ ডাকলে বলবে তার বাবা তাকে নিতে আসছে।

৫. বাচ্চাকে বোঝাবেন যে, শরীরের কিছুকিছু স্থান বা অঙ্গ গোপণীয়। যদি কেউ সেসব স্থান স্পর্শ করার চেষ্টা করে তবে যেন বাচ্চা বুঝতে পারে কোথাও ভুল হচ্ছে এবং তা আপনাকে অবহিত করে।

৬. স্কুলে বাচ্চাদের কিছু গ্রুপ বা দল তৈরি করতে হবে। যাদের মাঝে তারা এসব গোপণীয় বিষয় নিয়ে কথা বলবে। কারণ অনেক যৌন অপরাধী বাচ্চাদের বলবে এই বিষয়টা বা কথাগুলো গোপণ রাখবে। আর বাচ্চারাও গোপণ রাখতে পারে।

৭. যদি কোন অপরিচিত ব্যক্তি এমন কিছু করে যা বাচ্চার কাছে সঠিক বলে মনে না হয় তবে বাচ্চা যেন তা নিষেধ করে।

পরিশেষ, আপনার নিষ্পাপ বাচ্চার ভবিষ্যত সুন্দরভাবে গড়তে অবশ্যই তাকে বেশি বেশি সময় দিবেন। একাকী নির্জন স্থান বা রাস্তা দিয়ে কোথাও যেতে দিবেন না।

Googleplus Pint
Asifkhan Asif
Posts 1365
Post Views 159