MysmsBD.ComLogin Sign Up

Search Unlimited Music, Videos And Download Free @ Tube Downloader

পারল না জিম্বাবুয়ে

In ক্রিকেট দুনিয়া - Nov 02 at 11:48pm
পারল না জিম্বাবুয়ে

নিজেদের শততম টেস্ট ম্যাচটি জয়ে না হোক, দারুণ এক ড্র দিয়ে রাঙিয়ে রাখতে যাচ্ছিল জিম্বাবুয়ে। কিন্তু সম্ভাবনা জাগিয়েও শেষ পর্যন্ত পারল না জিম্বাবুইয়ানরা।

শেষ দিনের সাত ওভার বাকি থাকতে অলআউট হয়ে গেছে জিম্বাবুয়ে। হারারে টেস্ট শ্রীলঙ্কা জিতেছে ২২৫ রানে। তবে জয়ের ব্যবধান দেখে বোঝার উপায় নেই, শেষ দিনে কী লড়াইটাই না করল জিম্বাবুয়ে!

বৃষ্টির কারণে চতুর্থ দিনে শেষ সেশনে খেলা হয়েছিল মোটে ২৩ বল। দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেটে ২৪৭ রানে দিন শেষ করেছিল শ্রীলঙ্কা।

তখনই লিড হয়ে গিয়েছিল ৪১১ রানের। শেষ দিনে তাই আর ব্যাটিংয়ে নামেনি সফরকারীরা। ৯৮ ওভারে জিম্বাবুয়ের সামনে লক্ষ্য ৪১২। হার অথবা ড্র, জিম্বাবুয়ের সামনে খোলা ছিল তাই দুটি পথই।

দ্বিতীয় পথে জিম্বাবুয়ের শুরুটা অবশ্য ভালোই হয়েছিল। প্রথম ২৯ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে তুলেছিল ৬৮ রান। কিন্তু এরপরই ছন্দপতন। ২৯ ওভারে ১ উইকেটে ৬৮ থেকে স্বাগতিকদের স্কোর দাঁড়ায় ৩৩ ওভারে ৫ উইকেটে ৭৪, ৪ ওভারের মধ্যেই নেই ৪ উইকেট!

৫ উইকেটে ৭৪ রান নিয়েই লাঞ্চ বিরতিতে গিয়েছিল স্বাগতিকরা। লাঞ্চের পর ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন পিটার মুর। স্বাগতিকদের স্কোর তখন ৬ উইকেটে ১০০। তাদের পরাজয় তখন স্রেফ সময়ের ব্যাপার বলেই মনে হচ্ছিল।

কিন্তু জিম্বাবুয়ের আছে যে একজন গ্রায়েম ক্রেমার! প্রথম ইনিংসে ১৩৯ রানেই ৬ উইকেট হারানোর পর ক্রিজে নেমে দারুণ এক সেঞ্চুরিতে দলকে ফলোঅনের লজ্জা থেকে বাঁচিয়েছিলেন, দলকে পরাজয়ের হাত থেকে বাঁচাতে দ্বিতীয় ইনিংসে দাঁড়িয়ে গেলেন জিম্বাবুইয়ান অধিনায়ক।

সপ্তম উইকেটে শেন উইলিয়ামসের সঙ্গে ক্রেমার গড়লেন ৩৯ রানের জুটি। রানটা তখন বড় বিষয় নয়, চা বিরতির আগে দুজন কাটিয়ে দেন ১৮ ওভার। কিন্তু চা বিরতির পর রঙ্গনা হেরাথের করা চতুর্থ বলেই স্লিপে ধনঞ্জয়া ডি সিলভাকে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান উইলিয়ামস (৯২ বলে ৪০)।

নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিজে আসা ডোনাল্ড তিরিপানোও খানিক বাদে হেরাথের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরে যান। জিম্বাবুয়ের স্কোর তখন ৮ উইকেটে ১৪৫, দিনের খেলা বাকি ৩০ ওভার। তবে একপ্রান্ত আগলে রাখা ক্রেমার অভিষিক্ত কার্ল মুম্বাকে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যান।

কিন্তু দিনের খেলা যখন আর ১০ ওভারের মতো বাকি, তখনই ভুলটা করে বসলেন জিম্বাবুইয়ান অধিয়ায়ক। হেরাথের অফ স্টাম্পের বলটা খেলতে গেলেন ডাউন দ্য উইকেটে। কিন্তু ব্যাটে-বলে এক হলো না। ফল, কুশল পেরেরার হাতে স্টাম্পড ক্রেমার (১৪৪ বলে ৪৩)।

ক্রেমারের বিদায়ে জিম্বাবুয়েও ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে। তবুও শেষ উইকেটে ক্রিস্টোফার মফুকে নিয়ে লড়াইয়ের চেষ্টা চালিয়েছিলেন মুম্বা। কিন্তু দিলরুয়ান পেরেরার বলে মফু বোল্ড হয়ে গেলে শেষ হয়ে যায় ৩.১ ওভারের লড়াই। বৃথা যায় মুম্বার ৬২ বলে অপরাজিত ১০ রানের ইনিংসও।

• সংক্ষিপ্ত স্কোর......

শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংস : ৫৩৭

জিম্বাবুয়ে প্রথম ইনিংস : ৩৩৭

শ্রীলঙ্কা দ্বিতীয় ইনিংস : ২৪৭/৭ ডিক্লে.

জিম্বাবুয়ে দ্বিতীয় ইনিংস : (লক্ষ্য ৪১২) ১৮৬ (ক্রেমার ৪৩, উইলিয়ামস ৪০, মায়োয়ো ৩৭; পেরেরা ৩/৩৪, হেরাথ ৩/৩৮, লাকমাল ২/৪৩)।

ফল : শ্রীলঙ্কা ২২৫ রানে জয়ী

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : গ্রায়েম ক্রেমার

সিরিজ : দুই ম্যাচ সিরিজে শ্রীলঙ্কা ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে।

তথ্যসূত্রঃ বিডিনিউজ২৪

Googleplus Pint
Anik Sutradhar
Posts 6760
Post Views 324