MysmsBD.ComLogin Sign Up

অন্য এক শাহরুখের গল্প

In বিবিধ বিনোদন - Nov 02 at 9:09am
অন্য এক শাহরুখের গল্প

একজন অভিনয়শিল্পী হিসেবে যতটুকু সমৃদ্ধি অর্জনের প্রয়োজন ইতোমধ্যে তার সবটাই অর্জন করেছেন বলিউড বাদশা শাহরুখ খান। বলিউডে ২০ বছরের বেশি সময়ের ক্যারিয়ারে নিজের অনন্যতা এবং স্বকীয়তা দিয়ে অভিনয়ে এনেছেন নতুনত্ব, দর্শকদের মণিকোঠায় সৃষ্টি করেছেন নতুন স্থান।

সবমিলিয়ে বলা যায়-একজন অভিনয়শিল্পী হিসেবে শাহরুখ খান পুরোপুরি সফল। তবে শুধু অভিনয়েই নয় অভিনয়ের বাইরে উপস্থাপনা, স্টেজ পারফরম্যান্স এবং ব্যবসাতেও নিজের যোগ্যতার পরিচয় দিয়েছেন শাহরুখ খান।

আজ ২ নভেম্বর বলিউডের এই গুণী অভিনেতার জন্মদিন। ১৯৬৫ সালের এই দিনে নয়া দিল্লির এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন শাহরুখ। জন্মদিন উপলক্ষে অভিনয় ছাড়াও শাহরুখ খানের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সাজানো এই প্রতিবেদন।

উপস্থাপনা : উপস্থাপনায় সদা উজ্জ্বল শাহরুখ খান। কোনো স্টেজ অনুষ্ঠানে উপস্থাপনার মাধ্যমে তিনি দর্শককে যতটা মাতাতে পারেন ততটা বলিউডের আর কোনো অভিনেতা কিংবা অভিনেত্রী পারেন কিনা না তা নিয়ে বিতর্ক নিষ্প্রয়োজন। সর্বশেষ চলতি বছরে ফিল্মফেয়ারের ৬১তম আসরে কমেডিয়ান-উপস্থাপক কপিল শর্মার সঙ্গে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করে প্রচুর দর্শকপ্রিয়তা পান শাহরুখ।

এছাড়া টেলিভিশন উপস্থাপনাতেও শাহরুখ খান নিজেকে প্রমাণ করেছেন। ক্যারিয়ায়ের শুরুতে তিনি টিভি অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করেছেন। ২০০৭ সালে ‘কৌন বানেগা কৌড়পতি’ অনুষ্ঠানে অমিতাভ বচ্চনের স্থলে এক মৌসুম উপস্থানপনার দায়িত্ব নিয়ে সফলভাবে অনুষ্ঠানটির পরিচালনা করেন তিনি। এরপরের বছর স্টার প্লাসের ধারাবাহিক গেম শো ‘কিয়া আব পাঞ্চভি পাস সে তেজ হ্যায়’ –এর উপস্থাপক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১১ সালে এনডিটিভির খেলাধুলা বিষয়ক নিয়মিত অনুষ্ঠান ‘জোর কা ঝাটকা : টোটাল উইপআউট’এর মাধ্যমে উপস্থাপনায় বেশ কৃতিত্ব দেখান তিনি। তবে টেলিভিশন উপস্থাপনার পাশাপাশি বর্তমানে বিভিন্ন অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের উপস্থাপনায় শাহরুখ এক ভিন্ন স্থান দখল করে নিয়েছেন । সম্প্রতি জি সিনে অ্যাওয়ার্ড, স্টার অ্যাওয়ার্ড, স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড, টইফা অ্যাওয়ার্ডসহ বিভিন্ন অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে সফল উপস্থাপক হিসেবে বেশ প্রশংসিত হয়েছেন শাহরুখ খান।

স্টেজ পারফরম্যান্স : স্টেজ পারফর্মার হিসেবে শাহরুখ খানের জুড়ি নেই। যে কারণে বিশ্বের বড় বড় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান, বিশেষ করে এশিয়ার সব বড় বড় অনুষ্ঠানে শাহরুখকে সবথেকে বেশী প্রত্যাশা করেন আয়োজকরা। এ পর্যন্ত শাহরুখ খান একাধিক ইন্টারন্যাশনাল অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছেন। ১৯৯৭ সালে মালয়েশিয়ার টাইম কনসার্ট, লাইভ ফ্রম মালয়েশিয়া অনুষ্ঠানে তিনি কারিশমা কাপুরের সঙ্গে স্টেজ পারফর্মার হিসেবে দাওয়াত পান। যেটি ছিল শাহরুখের ক্যারিয়ারের অন্যতম বড় অনুষ্ঠান। এই অনুষ্ঠানটি ছিল মালয়েশিয়ার ইতিহাসে অন্যতম বড় অনুষ্ঠান। সে বছরই বিশ্বভ্রমনের অংশ হিসেবে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা সহ পশ্চিমের বিভিন্ন দেশের একাধিক অনুষ্ঠানে তিনি, অক্ষয় কুমার, কাজল, জুহি চাওলাসহ আরো অনেক বলিউড অভিনয়শিল্পীর সঙ্গে একসাথে স্টেজ পারফরম্যান্স করেন। ২০০২ সালে শাহরুখ খান অংশগ্রহণ করেন ম্যানচেস্টারের বিখ্যাত অনুষ্ঠান ‘ফ্রম ইন্ডিয়া উইথ লাভ’-এ। এই অনুষ্ঠানে সে সময়ের সবথেকে বেশী পরিমাণ দর্শকের উপস্থিতি ছিল। এর পরিমাণ ছিল ১ লাখের বেশী। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন অমিতাভ বচ্চন, আমির খান, প্রীতি জিনতা, ঐশ্বরিয়া রাইসহ আরো অনেকে। ২০১০ সালে আর্মি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের অন্যতম বড় অনুষ্ঠানে প্রধান আকর্ষণ হিসেবে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আসেন শাহরুখ খান। সঙ্গে এসেছিলেন রানী মুখার্জি, অর্জুন রামপালসহ আরো অনেকে। ২০১১ সালে তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার ডারবানে ‘ইন্ডিয়া-সাউথ আফ্রিকা ফেন্ডশিপ’ অনুষ্ঠানে স্টেজ পারফর্মার হিসেবে অংশ গ্রহণ করেন। এছাড়া ২০০৮ সালে নেদারল্যান্ড, ২০১২ সালে ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তা, ২০১৩ সালে সিডনি, অকল্যান্ড, পেরু, ২০১৪ সালে ইংল্যান্ড কানাডাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বড় অনুষ্ঠান সহ দেশের বিভিন্ন বড় বড় স্টেজ পারফরম্যান্সে অংশগ্রহণ করে প্রচুর নন্দিত হয়েছেন শাহরুখ খান।

ব্যবসা : অভিনয়ের পাশাপাশি একজন সফল ব্যবসায়ী হিসেবে শাহরুখ খান বিশেষ পরিচিত। ব্যাবসায়ী হিসেবে ইন্ডিয়ার বড় ঘরোয়া ক্রিকেট আসর ইন্ডিয়ান প্রিমিয়িার লিগ বা আইপিএল-এর অন্যতম প্রধান দল ‘কলকাতা নাইট রাইডারস’-এর মালিক হিসেবে তিনি বেশ পরিচিত। ২০০৮ সালে জুহি চাউলার সাথে ৭৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার শেয়ারে দলটি কিনলেও ২০০৯ সালে দলটির সম্পূর্ণ মালিকানা কিনে নেন শাহরুখ। এই দলের মাধ্যমে বড় বড় সাফল্যের মুখ দেখেছেন শাহরুখ। তবে শুধু আইপিএল নয়, সিনেমার প্রযোজক হিসেবেও শাহরুখের সফলতা পেয়েছেন। ১৯৯৯ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত ‘ড্রিমজ’ প্রডাকশানের কো প্রডিউসার হিসেবে কাজ করার পর ‘রেড চিলি এন্টারটেইনমেন্ট’ নামে স্ত্রী গৌরি খানকে নিয়ে সিনেমার একজন পূর্ণ প্রযোজক হিসেবে যাত্রা শুরু করেন। সিনেমার প্রযোজনার পাশাপাশি টেলিভিশনের বিভিন্ন অনুষ্ঠানের প্রযোজনাতেও শাহরুখ খানকে দেখা যায়।

সবমিলিয়ে শাহরুখ খান একজন সফল অভিনেতার পাশাপাশি একজন সফল ব্যবসায়ী।

তবে শুধু উপস্থাপনা, স্টেজ পারফরম্যান্স কিংবা ব্যবসাতেই শাহরুখ খান সীমাবদ্ধ নন। আরো অনেক গুণ রয়েছে এই অভিনেতার যেগুলোর কারণে শাহরুখ খান পরিণত হয়েছেন একজন জীবন্ত কিংবদন্তিতে।

তথ্যসূত্রঃ অনলাইন

Googleplus Pint
Anik Sutradhar
Posts 6704
Post Views 311