MysmsBD.ComLogin Sign Up

তৈলাক্ত ত্বকের যত্ন

In রূপচর্চা/বিউটি-টিপস - Oct 28 at 9:44pm
তৈলাক্ত ত্বকের যত্ন

আমাদের সবার ত্বক একই রকম নয়। কারও ত্বক শুষ্ক, কারও স্বাভাবিক আবার কারও তৈলাক্ত। তৈলাক্ত ত্বকের ফলে মুখে বিভিন্ন ধরণের সমস্যার সৃষ্টি হয়। ব্রণ, দাগ তৈলাক্ত ত্বকের নিত্যদিনের সমস্যা।

তবে তৈলাক্ত ত্বক মোটেই খারাপ নয়। কেবল মাত্র প্রয়োজন কিছু বাড়তি যত্ন। প্রকৃত পক্ষে শুকনো ত্বকে বয়োবৃদ্ধির যে সব রেখা অতি দ্রুত পরিস্ফুট হয় তৈলাক্ত ত্বকে সে সব রেখা অনেক দেরিতে দেখা দেয়। কাজেই যাদের ত্বক তৈলাক্ত তাদের হীনমন্যতায় ভোগার কোনো কারণ নেই, বরং তাদের সুবিধাও আছে। শুধু জানতে হবে তৈলাক্ত ত্বকের সঠিক পরিচর্যা।

এ ব্যাপারটাকে অবহেলা করা মানেই আপনি ব্রণ, ফুসকুড়ি, অবাঞ্চিত দাগ এবং আরও অনেক ত্বকের সমস্যায় পড়তে পারেন।

• দেরি না করে আসুন তৈলাক্ত ত্বকের পরিচর্যার নিয়ম জেনে নিই....

টিস্যু পেপার : যখনই আপনার মুখাবয়ব অতিরিক্ত তৈলাক্ত হয়ে উঠবে তখনই আপনার প্রয়োজন একটা টিস্যু পেপার দিয়ে এই অতিরিক্ত তেলকে শুষে নেয়া। এর ফলে আপনার মুখের তেল তেলে ভাবটা কমে যাবে।

মুখ ধোয়া : কমপক্ষে দিনে দুবার মুখ ধুয়ে ফেলুন। এর ফলে মুখের তৈলাক্তভাব নিয়ন্ত্রণে থাকবে। তবে অতিরিক্ত পরিষ্কার করবেন না, যাতে ত্বকে শুকনোভাব চলে আসে। মুখ পরিষ্কার করার জন্য মোলায়েম কিছু (Cleanser) ব্যবহার করুন।

মাস্ক : মুখের ওপরে ধূলো বা নোংরা এবং তেলকে শুষে নেবার জন্য প্রত্যেক সপ্তাহে ক্লে মাস্ক ব্যবহার করুন।

ময়েশ্চারাইজার : এমন এক প্রসাধন ব্যবহার করুন যা তেলমুক্ত। যদিও তৈলাক্ত ত্বকের জলীয় পদার্থের প্রয়োজন অনেক কম, তবু এর কিছুটা দরকার আছে।

প্রসাধনীর একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আমাদের মনে রাখা প্রয়োজন। মেকআপের ওপর কম নির্ভর করাই ভাল কারণ ত্বকের স্বাভাবিক চরিত্র হলো, অতিরিক্ত বহিরাগতের অনুপ্রবেশ ত্বক সহ্য করতে পারে না।

এর সঙ্গে প্রসাধন দ্রব্য বাছাইয়ের ব্যাপারে আপনার সতর্ক হওয়া উচিত। কারণ মনে রাখবেন সব প্রসাধন দ্রব্যই কিন্তু আপনার পক্ষে উপযুক্ত নয়। এমন কি এর মধ্যে কিছু আপনার জন্য ক্ষতিকর।

Googleplus Pint
Anik Sutradhar
Posts 6704
Post Views 217