MysmsBD.ComLogin Sign Up

সাকিবের ৫ উইকেটেও স্বস্তিতে নেই টাইগাররা

In ক্রিকেট দুনিয়া - Oct 22 at 6:13pm
সাকিবের ৫ উইকেটেও স্বস্তিতে নেই টাইগাররা

সাকিব আল হাসানের ৫ উইকেটেও তৃতীয় দিনের খেলা শেষে স্বস্তিতে নেই টাইগাররা। আর স্বাগতিকদের এই অস্বস্তির কারণ বেন স্টোকস এবং জনি বেয়ারস্টোর ১২৭ রানের বড় জুটি।

৬২ রানের মধ্যে প্রথম সারির ৫জন ব্যাটসম্যান হারিয়ে চাপে পড়া ইংল্যান্ডকে টেনে তোলেন স্টোকস ও বেয়ারস্টো। মূলত তাদের জুটির কারণেই ২৭৩ রানের লিড পেয়েছে ইংল্যান্ড। হাতে এখনও রয়েছে ২টি উইকেট।

রোববার ৮ উইকেটে ২২৮ রান নিয়ে নতুন করে দিনের খেলা শুরু করবেন স্টুয়ার্ট ব্রড ও ক্রিস ওকস। ব্রড ১০ এবং ওকস ১১ রানে অপরাজিত আছেন।

এর আগে শনিবার সকালে মাত্র ২৭ রানে স্বাগতিক বাংলাদেশ শেষ ৫ উইকেট হারিয়ে ২৪৮ রানে গুটিয়ে যায়। সবমিলে শেষ ৫৫ রানে পড়ে ৮ উইকেট।

এরপর সফরকারী ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়। সাকিব আল হাসান, তাইজুল ইসলাম আর মেহেদী হাসান মিরাজের ঘূর্ণিজাদুতে ৬২ রান তুলতেই হারিয়ে ফেলে শীর্ষ পাঁচ ব্যাটসম্যানকে।

ইনিংসের প্রথম আঘাত হানেন প্রথম ইনিংসে ইংলিশদের ৬ জনকে তুলে নেয়ার নায়ক মিরাজ। দলীয় ২৬ রানে অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুককে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের হাতে ক্যাচ দিতে বাধ্য করান তিনি।

এরপর আঘাত সাকিবের। এক রান তোলার পরেই জো রুটকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন তিনি।

মধ্যাহ্ন বিরতির ঠিক আগ মুহূর্তে সাকিব ফের আঘাত হানেন। দলীয় ২৮ রানে ফিরিয়ে দেন ১৫ করা ওপেনার বেন ডাকেটকে। এরপর দলীয় ৪৬ রানে তাইজুল ইসলাম তুলে নেন গ্যারি ব্যালান্সের উইকেট। তার বলে ইমরুল কায়েসের তালুবন্দি হন ব্যালান্স।

মঈন আলী ইনিংস মেরামতের চেষ্টা করেও সফল হননি। ব্যক্তিগত ১৪ রানে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে সাকিবের শিকারে পরিণত হন তিনি। এসময় দলের রান ছিল ৬২।

বিপর্যয়ে পড়া ইংল্যান্ডের ইনিংসকে ধীরে ধীরে বড় সংগ্রহের দিকে এগিয়ে নিয়ে যান জনি বেয়ারস্টো ও বেন স্টোকস। তাদের ১২৭ রানের জুটি ভাঙেন টাইগার বোলার কামরুল ইসলাম রাব্বি।

৪৭ রান করা ইংলিশদের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান বেয়ারস্টো বোল্ড হন। অভিষেকে এটা কামরুলের প্রথম শিকার। ক্রিকেটে একটা কথা আছে, বড় জুটি গড়ার পর কোনো একজন ব্যাটসম্যান আউট হলে অপরজনও দ্রুত আউট হন। ইংল্যান্ডের বেলায়ও তাই হলো। জনি বেয়ারস্টোর পর দ্রুতই সাজঘরে ফেরেন সেঞ্চুরির স্বপ্ন দেখা বেন স্টোকস।

সাকিবের ঘূর্ণিতে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন স্টোকস। তিনি ৮৫ রান করেন। এরপর নিজের ৫ম উইকেট শিকার করেন সাকিব। ৯ রান করা আদিল রশিদকে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলেন তিনি।

তবে আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা প্রথমে আউট না দিলেও রিভিউ নিয়ে সফল হন টাইগার অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

তৃতীয় দিনের খেলা বিশ্লেষণ করলে বলাই যায় যে- প্রথম টেস্ট শেষে স্টোকস এবং বেয়ারস্টোর এই জুটিটাই বাংলাদেশের জন্য বড় আক্ষেপের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

তবে এখনও দুইদিন আছে। ক্রিকেটে শেষ বল না হওয়া পর্যন্ত কোনো ভবিষ্যৎবাণী করা যায় না। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা বিশেষ করে টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যানরা যদি রানে ফিরতে পারেন তাহলে হয় তো এই টেস্টের ফলাফল বাংলাদেশের দিকেই আসবে।

সূত্রঃ যুগান্তর

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Posts 3837
Post Views 540