MysmsBD.ComLogin Sign Up

[Trick] Uc Browser দিচ্ছে ৪০০০টাকা করে বিকাশে। বাংলাদেশ থেকে প্রথম থেকে ৪০০০ জন পাবে ৪০০০ টাকা করে ।

অ্যাশ-রণবীরের ঘনিষ্ঠতায় কাঁচি বিগ বি’র নির্দেশে

In সিনেমা জগৎ - Oct 16 at 4:16pm
অ্যাশ-রণবীরের ঘনিষ্ঠতায় কাঁচি বিগ বি’র নির্দেশে

ছবিতে বউমার ঘনিষ্ঠ দৃশ্য দেখে ‘অ্যাঙ্গরি’ পা৷ অসমর্থিত সূত্রের দাবি, তাঁর নির্দেশেই ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবিতে রণবীর-ঐশ্বর্যের একাধিক চুম্বন দৃশ্যে কাঁচি চালাতে বাধ্য হয়েছে সেন্সর বোর্ড৷ আর শ্বশুরের রাগ দেখে ছবিটির প্রচার থেকে দূরেই থাকছেন অ্যাশ৷

করণ জোহরের এই রোমান্টিক ছবির ট্রেলার লঞ্চ হওয়ার পর থেকেই উত্তপ্ত আবহাওয়া জলসায়৷ প্রায়ই ছবিটিতে অ্যাশের অভিনয় করা নিয়ে বিরক্ত প্রকাশ করছিলেন অমিতাভ বচ্চন৷ ক্ষুব্ধ হয়ে ঐশ্বর্যের সঙ্গে কথা বলা বন্ধ করে দেন শাশুড়ি জয়াও৷ যদিও ঐশ্বর্যর এই নতুন ছবি নিয়ে সংবাদমাধ্যম অমিতাভ বচ্চনকে প্রশ্ন করলে তিনি ট্রেলার বা গানের কোনও দৃশ্যই দেখেননি বলে জবাব দিয়েছেন৷

ট্রেলারে রণবীর-অ্যাশের অসমবয়সি প্রেম, ঘনিষ্ঠতা দেখে তাঁদের নতুন জুটি হিসাবে যখন সবাই ভাবতে শুরু করেছেন তখন হঠাৎ কেন রেগে গেলেন বিগ বি? শোনা যাচ্ছে, টেলিভিশনে ছবির একটি গান দেখার পরে আর ধৈর্য ধরে রাখতে পারেননি তিনি৷

বচ্চন পরিবারের ‘বহু’কে এমন আপত্তিকর দৃশ্যে মানায় না বলেই না কি সেন্সর বোর্ডের সদস্য-বন্ধুদের বেশ কিছু ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের দৃশ্য বাদ দিতে বলেন অমিতাভ৷ শাহেনশার নির্দেশ মেনে দৃশ্যগুলি দেখানোর অনুমোদন দেননি সেন্সর বোর্ড কর্তারাও৷

মেয়ে আরাধ্যার জন্মের পর বলিউডে কামব্যাক করলেও এখনও অ্যাশের ছবি হিটের মুখ দেখেনি৷ অসমবয়সি প্রেম-বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের কাহিনি নিয়ে তৈরি ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ মুক্তির আগেই অ্যাশদের ঘনিষ্ঠ দৃশ্যের জন্য জনপ্রিয়তা পেয়েছে৷

ছবির গান ও ট্রেলারে স্পষ্ট হয়েছে, ঐশ্বর্য ‘বচ্চন বধূ’ ইমেজ ছেড়ে বেরনোর চেষ্টা করেছেন৷ অন্যদিকে রণবীরের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক নিয়েও গুজব ছড়িয়েছে৷

বলিউডের অন্দরে খবর, ছবির শুটিংয়ের ফাঁকে ঐশ্বর্যের সঙ্গে অনেকটাই সময় কাটাতেন রণবীর৷ সেই খবরও কানে যায় অমিতাভর৷ তবে এত কিছুর মধ্যেও চুপ রয়েছেন অভিষেক৷ তাঁর কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি৷ -সংবাদ প্রতিদিন

[Trick] Uc Browser দিচ্ছে ৪০০০ টাকা করে বিকাশে। বাংলাদেশ থেকে প্রথম থেকে ৪০০০ জন পাবে ৪০০০ টাকা করে ।

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Posts 3971
Post Views 289