MysmsBD.ComLogin Sign Up

প্রস্তুতি ম্যাচ : দ্যুতি ছড়ালেন শাহরিয়ার-সৌম্য-সাব্বির-ডাকেট

In ক্রিকেট দুনিয়া - Oct 15 at 6:56pm
প্রস্তুতি ম্যাচ : দ্যুতি ছড়ালেন শাহরিয়ার-সৌম্য-সাব্বির-ডাকেট

৪৫ ওভার করে প্রস্তুতি ম্যাচ, নেই জয়-পরাজয়ের তাড়না। আছে শুধু নিজেদের ঝালিয়ে নেওয়ার ঐকান্তিক প্রচেষ্টা।

সেই প্রচেষ্টায় শতভাগ সফল ইংল্যান্ড দলের বেন ডাকেট ও বিসিবি একাদশের সাব্বির রহমান, শাহরিয়ার নাফীস ও সৌম্য সরকার।

চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে ভেজা আউটফিল্ডের কারণে ম্যাচের প্রথম দিন ভেস্তে যাওয়ায় আজ দ্বিতীয় দিনে ৪৫ ওভার করে খেলছে ইংল্যান্ড ও বিসিবি একাদশ। আগে ব্যাট করতে নেমে ৪৫ ওভারে ৪ উইকেটে ১৩৭ রান করে ইংল্যান্ড। জবাবে বিসিবি একাদশ ১ ওভার কম খেলে ৪ উইকেটে তুলেছে ১৩৬ রান।

দুই দলের দুই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান দ্যুতি ছড়িয়েছেন এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে। দুই দলের দুজনই পেয়েছেন হাফ সেঞ্চুরির স্বাদ। ডাকেট ৬৩ বলে ৬ বাউন্ডারিতে করেছেন ৫৯ রান। সেখানে শাহরিয়ার ৭৯ বলে ৫ বাউন্ডারিতে করেছেন ৫১ রান। দুজনই অপরাজিত।

ওয়ানডেতে দারুণ পারফরম্যান্স করা ডাকেট নিশ্চিতভাবেই টেস্ট দলে থাকছেন। শাহরিয়ার থাকবেন কি না, তা নিয়ে রয়েছে ধোঁয়াশা! থাকলেও ওপেনিংয়ে খেলতে পারছেন না, তা এক প্রকার নিশ্চিত। কারণ তামিমের সঙ্গে বেশ ভালোভাবেই নিজেকে মানিয়ে নিয়েছেন ইমরুল কায়েস।

দলে সুযোগ আসুক আর না আসুক, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নজরকাড়া শট উপহার দিয়েছেন শাহরিয়ার। ব্রডের বলে কভার দিয়ে বাউন্ডারি মেরে রানের খাতা খোলার পর একই জায়গা দিয়ে দ্বিতীয় বাউন্ডারি হাঁকান বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। ব্রডের বলে পাওয়া তৃতীয় বাউন্ডারিটি আসে কভার দিয়ে। দারুণ ড্রাইভে বল ব্যাটের ছোঁয়া পেতেই বাউন্ডারিতে দৌড় দেয়।

স্পিনার গ্যারেথ ব্যাটির বলে স্কয়ার লেগ দিয়ে আসে তার চতুর্থ বাউন্ডারি। হাফ সেঞ্চুরির আগে ৩৫ রানে পেয়েছিলেন জীবন। আনসারির বলে স্লগ সুইপে মিড উইকেটে ক্যাচ দিয়েছিলেন। মঈন আলী সহজ ক্যাচ হাতছাড়া করে ইংলিশদের উইকেটের অপেক্ষায় রাখেন। জীবন পেয়ে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ৫৯ রানে রিটায়ার্ড আউট হন শাহরিয়ার।

ব্যাটিংয়ে দারুণ ধৈর্যের পরিচয় দেন অফফর্মে থাকা সৌম্য সরকার। ৯৬ বলে ২ চার ও ২ ছক্কায় করেছেন ৩৩ রান। গ্যারেথ ব্যাটি ও জাফর আনসারিকে ক্রিজ থেকে বেরিয়ে এসে মিড ‍উইকেট ও লং অনের মাঝদিয়ে যেভাবে ছক্কা মেরেছেন, তা এক কথায় ছিল চোখ ধাঁধানো। এক সময়ের জন্য মনে হচ্ছিল ‘সৌম্য ইজ ব্যাক।’ এরপর অধিনায়ক সাব্বিরের ৩০ ও নাজমুল হোসেন শান্তর ১৭ রান বাংলাদেশের স্কোরকে ১৩৬ রানে নিয়ে যায়।

এর আগে বোলিংয়ে দ্যুতি ছড়িয়েছেন সাব্বির। তার স্পিনে বধ তিন ইংলিশ ক্রিকেটার। জো রুটকে (২) আউট করার পর ‘বেবি বয়কট’ খ্যাত হাসিব হামিদকে (১৬) সাজঘরের পথ দেখান সাব্বির। তার তৃতীয় শিকার মঈন আলী (২৪)।

হাফ সেঞ্চুরিয়ান ডাকেট রিটায়ার্ড আউট হওয়ার পর ক্রিজে আসেন রুট। কিন্তু ৯ বলের বেশি স্থায়ী হয়নি তার ইনিংস। সাব্বিরের বলে সুইপ করতে গিয়ে এলবিডব্লিউয়ের শিকার ওয়ানডে সিরিজে বিশ্রামে থাকা রুট। এরপর হামিদ সাব্বিরের লেগ স্পিনে বধ। লাফিয়ে ওঠা বলে ধরাশয়ী ১৯ বছর বয়সি এ ওপেনার, ধরা পড়েন উইকেটকিপার নুরুল হাসান সোহানের গ্লাভসে। এরপর মঈন আলী কভারে রাব্বির হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরের পথ ধরেন।

সফরকারী দলের স্কোরবোর্ড আরো সমৃদ্ধ হতো। আউটফিল্ড স্লো থাকায় বল সকালে আটকে যাচ্ছিল। সময় গড়ানোর সাথে সাথে আউটফিল্ড ফাস্ট হয়। যার ফল পায় স্বাগতিক ব্যাটসম্যানরা। ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা যেখানে ১২ বাউন্ডারিতে ইনিংস সাজিয়েছেন, সেখানে স্বাগতিক ব্যাটসম্যানদের মোট বাউন্ডারির সংখ্যা ১৬টি।

তথ্যসূত্রঃ অনলাইন

Googleplus Pint
Anik Sutradhar
Posts 6960
Post Views 935