MysmsBD.ComLogin Sign Up

[Trick] Uc Browser দিচ্ছে ৪০০০টাকা করে বিকাশে। বাংলাদেশ থেকে প্রথম থেকে ৪০০০ জন পাবে ৪০০০ টাকা করে ।

বলিউড কিংবদন্তী রেখার জীবনের অজানা ১০ টি তথ্য

In বিবিধ বিনোদন - Oct 10 at 4:39pm
বলিউড কিংবদন্তী রেখার জীবনের অজানা ১০ টি তথ্য

তিনি ‘খুবসুরৎ’, বলিউডের অদ্বিতীয় ‘উমরাও জান’৷ তার ‘আঁখো কি মস্তিমে’ ডুব দিয়েছে পুরো ভারতবাসি৷ তিনি সবার প্রিয় রেখা।

আজ তাঁর ৬২ তম জন্মদিন। তামিল অভিনেতা গেমিনী গনেশন ও তেলেগু অভিনেত্রী পুষ্পাভ্যাল্লীর ঘরে ভারতের চেন্নাইয়ে ১০ অক্টোবর, ১৯৫৪ সালে জন্মগ্রহন করেন এ অভিনেত্রী। ইন্ডিয়া টুডে অবলম্বনে চলুন জেনে নেয়া যাক তাঁর এ বলিউড কিংবদন্তীর জীবনের অজানা ১০ টি তথ্য।

১। রেখার মা-বাবা বিবাহিত ছিলেন না। তাই পুরো শৈশবজুড়েই তিনি জানতেন না তাঁর বাবা কে! পরিবারের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো না থাকার জন্যই অভিনয়ে এসেছিলেন তিনি।

২। রেখার একটি বোন আছে। কিন্তু একইসাথে তার অনেকগুলো সৎ ভাইবোনও আছে। ৫ সৎবোন এবং একজন সৎভাই আছে যাদের সবার বাবাই গনেশন, কিন্তু মা আরেকজন। তবে সবার সাথেই সম্পর্ক রেখেছেন রেখা।

৩। ১৯৬৬ সালে ‘রাঙ্গোলা রত্নাম’ নামে একটি তেলেগু ছবির মাধ্যমে শিশু শিল্পী হিসেবে তার চলচ্চিত্র জীবন শুরু হয়। কিন্তু নায়িকা হিসেবে তার যাত্রা শুরু ১৯৬৯ সালে। কান্নাডা ফিল্ম অপারেশন ‘জ্যাকপট নাল্লি সিআইডি- ৯৯৯’ তে অভিনয় করেন তিনি।

৪। ১৯৭০ সালে এসে রেখা তার পরিবার সম্পর্কে সবাইকে জানান। এর আগে তার পারিবারিক ব্যাপারে কেউ কিছু জানতে পারেনি।

৫। মাত্র ১৫ বছর বয়সে বলিউডে পা রাখেন রেখা। প্রথম ছবি ‘আনজানা সাফার’-এর সেটে এসেই হেনস্থার মুখে পড়েন তিনি। প্রথম দৃশ্যটিই ছিল একটি চুম্বন দৃশ্য, যা অল্প বয়সী রেখার জন্য বেশ অস্বস্তিকর।

৬। হিন্দিতে খুব একটা ভালো ছিলেন না রেখা। ক্যারিয়ারের প্রথম ১০ বছর তাই অনেক ঝক্কি পহাতে হয়েছে তাকে।

৭। অভিনেত্রি হিসাবে খুব একটা গণ্য করা হতো না তাকে। ১৯৭৬ সালে মুক্তি পাওয়া ‘দো আনজানে’ সিনেমাতে অমিতাভের সাথে অনবদ্য অভিনয় করে সবার নজরে আসেন রেখা। ১৯৭৮ এর ‘ঘর’ সিনেমাতে ধর্ষিতা নারীর চরিত্রে তার অভিনয় আরও পরিচিতি বাড়িয়ে দেয় কয়েকগুণ।

৮। ১৯৭৩ সালে মিডিয়াতে খবর রটে রেখা অভিনেতা বিনোদ মেহরাকে বিয়ে করেছেন । এ নিয়ে বিনোদের মা রেখার সাথে বাজে ব্যবহার শুরু করেন। এমনকি পা ছুঁয়ে আশীর্বাদ নেয়ার সময়ে রেখাকে ধাক্কাও মারেন তিনি। পরবর্তীতে বিনোদের মধ্যস্থতায় ব্যাপারটি মিটমাট হয়।

৯। ১৯৮০ সালের ২২ জানুয়ারিতে ঋষি কাপুর এবং নিতুর সিংয়ের বিয়েতে শাখা-সিঁদুর পড়ে উপস্থিত হন রেখা। সাদা শাড়ি, লালটিপ, সিঁদুর; সব মিলিয়ে রেখাকে বধুবেশেই সেদিন দেখেছিলেন সবাই। এ নিয়ে বিতর্ক কম হয়নি। অমিতাভ-জয়া দম্পতিকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলার জন্যই এরকম করেছিলেন বলে ধারণা অনেকের।

১০। রেখার প্রথম স্বামী মুকেস আগারওয়াল মানসিকভাবে অসুস্থ ছিলেন। ব্যাপারটা ঠিক জানতেন না রেখা। এক পর্যায়ে মুকেশ আত্মহত্যা করেন। স্বামীর মৃত্যুর জন্য রেখাকেও দায়ি করে অনেক সংবাদ মাধ্যম। কিন্তু সবকিছু পিছনে ফেলে নতুনভাবে জীবন শুরু করেন রেখা। -বিডি নিউজ

[Trick] Uc Browser দিচ্ছে ৪০০০ টাকা করে বিকাশে। বাংলাদেশ থেকে প্রথম থেকে ৪০০০ জন পাবে ৪০০০ টাকা করে ।

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Posts 4016
Post Views 518