MysmsBD.ComLogin Sign Up

ইংল্যান্ড সিরিজে জ্বলে উঠতে পারেন তারাও

In ক্রিকেট দুনিয়া - Oct 07 at 12:37am
ইংল্যান্ড সিরিজে জ্বলে উঠতে পারেন তারাও

বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড সিরিজে কে জ্বলে উঠতে পারেন তা নিয়ে চলছে জোর আলোচনা। সংক্ষেপে চিনে নিন তাদেরকে।

বেন ডাকেট
ঘরের মাটিতে টানা ৬ষ্ট সিরিজ জিতে অপ্রপ্রতিরোধ্য হয়ে ওঠা বাংলাদেশ যে চ্যালেঞ্জিং হবে, ঢাকায় পা রেখেই সেটি স্বীকার করে নিয়েছেন তারুণ্যনির্ভর দল নিয়ে আসা ইংলিশ অধিনায়ক জস বাটলার। তবে উল্টো টাইগারদের জন্য হুমকি হতে পারেন ২১ বছর বয়সী বিস্ময় ইংলিশ ব্যাটসম্যান বেন ডাকেট। সম্প্রতি দেশটির ঘরোয়া ক্রিকেটে আলো ছড়িয়ে প্রথমবারের মতো জাতীয় দলে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি।

কাউন্টি ও রয়্যালস কাপের সেরা ক্রিকেটার বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে ইংলিশদের ‘তুরুপের তাস’ হিসেবে আবির্ভূত হতে পারেন। এমনকি বাঁ-হাতি রোমাঞ্চকর ব্যাটসম্যান হতে পারেন নতুন আন্তর্জাতিক আবিষ্কার। প্রথম ইংলিশ ক্রিকেটার হিসেবে একই সঙ্গে ইংল্যান্ড এ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) ‘ঘরোয়া বর্ষসেরা’ ও ‘বর্ষসেরা তরুণ’ খেলোয়াড়ের দু’দুটি পুরস্কার পেয়েছেন। স্থানীয়ভাবে যেটিকে ‘অনন্য ডাবল’ বলে আখ্যায়িত করা হচ্ছে।

ইংল্যান্ডে এ মৌসুমটা শুরুই করেছেন ২৮২ রানের ম্যারাথন ইনিংস দিয়ে। এরপর হাঁকিয়েছেন আরও দুটি ডাবল সেঞ্চুরি। রয়্যাল লন্ডন ওয়ানডে কাপে নর্দাম্পটনশায়ারের হয়ে পঞ্চাশ ওভারের ম্যাচেও রয়েছে সেঞ্চুরি। কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপে একটি ডাবল ও দুটি সেঞ্চুরি। সর্বশেষ ৬ সেপ্টেম্বর কেন্টের বিপক্ষে খেলেছেন ২০৮ রানের মনোমুগ্ধকর ইনিংস। নামের সঙ্গে ‘রান-মেশিন’ উপমাও আর যথেষ্ট নয়!

সিরিজ শুরুর আগে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে দলে হয়ে করেন ২৯ রান। হেলস-মরগানের বিকল্প হিসেবে আগ্রাসী ব্যাটসম্যানের অভিষেকটা হয়তো সময়ের ব্যাপার মাত্র।

জেমস ভিন্স
বাংলাদেশের বিপক্ষে উদীয়মান ইংলিশ ক্রিকেটারদের মধ্যে যারা জ্বলে উঠতে পারেন, তাদের মধ্যে অন্যতম জেমস মাইকেল ভিন্স। আসন্ন সিরিজে ভিন্স খেলতে পারেন পাঁচ নম্বরে। ইংলিশদের ওয়ানডে একাদশের এই পজিশনে খেলতেন জেমস টেলর। কিছুদিন আগে হার্টের সমস্যার কারণে তরুণ বয়সেই ক্রিকেটকে বিদায় জানান টেলর। কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপে নটিংহামশায়ারের বিপক্ষে অভিষেক ঘটে ভিন্সের, ১১ জুন, ২০০৯। তিনি কাউন্টি দল হ্যাম্পশায়ারের ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ওয়ানডেতে ভিন্সের পথচলা শুরু ৮ মে, ২০১৫। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে তার একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে। এরপর নিজ দেশের হয়ে ওয়ানডে দলে খুব একটা নিয়মিত ছিলেন না। জাতীয় দলের হয়ে এ পর্যন্ত দুটি একদিনের ম্যাচ খেলেছেন ভিন্স। ডাবলিনে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষিক্ত ম্যাচে ব্যাট ধরার সুযোগ হয়নি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে ৫১ রান করেন তিনি।

তবে ইংলিশদের টেস্ট দলে নিয়মিত খেলোয়াড়ই তিনি। এ পর্যন্ত ৭ ম্যাচ খেলে করেছেন ২১২ রান। ৫টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে করেছেন ১৬৩ রান। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মোটে একটি ফিফটি জমা আছে ভিন্সের নামের পাশে। তার পরও বাংলাদেশের বিপক্ষে আতঙ্কের কারণ হয়ে উঠতে পারেন ফতুল্লায় বিসিবি একাদশের বিপক্ষে ওপেনিংয়ে নেমে ৪৮ রান করা এই ইংলিশ। হ্যাম্পশায়ারের পরামর্শক ও ইংল্যান্ডের সাবেক কোচ ডানকান ফ্লেচারের মতে, ভিন্স ইংল্যান্ডের সাবেক ব্যাটসম্যান মাইকেল ভনের আদলে গড়ে উঠেছেন।

মোশাররফ রুবেল
আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিংয়ের নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তি পেলেও আরাফাত সানির জায়গা হয়নি জাতীয় দলে। এরপর থেকেই সাকিবের সঙ্গী হিসেবে একজন স্পেশালিষ্ট বাঁ-হাতি অর্থোডক্স স্পিনারের খোঁজে ছিলেন নির্বাচকরা। আর এতেই কপাল খুলে গেলো মোশাররফ রুবেলের।

আফগানদের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডে ম্যাচ দিয়ে আট বছর পর ফিরলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলে। ঘরোয়া লিগে সব সময়ই থাকেন উইকেট শিকারিদের তালিকায় শীর্ষে। তারই পুরস্কার হিসেবে ২০০৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ডাক পেয়েছিলেন মোশাররফ রুবেল। যদিও ওই সিরিজটাকে ভুলে থাকতে চাইবেন তিনি। কারণ, ৩ ম্যাচ থেকে নিয়েছেন মাত্র ১টি উইকেট।

এরপরই বিসিবির নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রুবেল নাম লেখান ভারতের নিষিদ্ধ ঘোষিত লিগ আইসিএলে। যে কারণে দীর্ঘদিন ছিলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটের বাইরে। কালিমা মুছে ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরতে পারলেও অনেক দিন পার হয়ে যাওয়ায় আর জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার আশাই যেন ছেড়ে দিয়েছিলেন।

তবে যথারীতি ছিলেন ঘরোয়া লিগের সেরা পারফরমার। এরপর ভারতীয় স্পিন পরামর্শক ভেঙকাটাপাথে রাজু এইচপিতে খণ্ডকালীন কোচিং করাতে এসে রুবেলের পারফরম্যান্স দেখে বিসিবিকে পরামর্শ দিয়ে যান তাকে জাতীয় দলের ক্যাম্পে ডেকে পরখ করতে। সে ধারাবাহিকতায়ই ভাগ্য খুলে গেলো মোশাররফ রুবেলের।

আগের তিন ম্যাচে ১ উইকেট পাওয়া মোশাররফ রুবেল আফগানদের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে জায়গা পেয়েই তুলে নিলেন ৩ উইকেট। এবার দেখার বিষয় ইংলিশের বিপক্ষে নিজের ঘূর্ণির কতটা জাদু দেখাতে পারেন এই বোলার। বয়স মাত্র ২০। চোখে মুখে এখনো কৈশোরের ছাপ। কিন্তু এরই মধ্যে নিজের পারফর্মেন্স দিয়ে চলে এসেছেন আলোচনায়। আফগানিস্তানের পর ডাক পেয়েছেন ইংল্যান্ডের বিপক্ষেও।

মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত
গত নভেম্বরে টি-টোয়েন্টি দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যাত্রা মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের। আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে ৭৬ রানের দারুণ ইনিংস খেলেই জাতীয় দলে অভিষেকের দরজায় কড়া নাড়ছিলেন এ অলরাউন্ডার। অবশেষে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে এসে বাংলাদেশের ওয়ানডে ক্রিকেটে ১১৯তম খেলোয়াড় হিসেবে অভিষেক হয় ময়মনসিংহের এই তরুণের।

অভিষেকেই কঠিন পরীক্ষার মধ্যে পড়তে হয়েছে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে। ৩২ ওভার শেষে যখন ব্যাট হাতে মাঠে নামেন, তখন বাংলাদেশের স্কোর ছিল ১৩৮/৬। স্বীকৃত সব ব্যাটসম্যানই ফিরেছিলেন সাজঘরে। তবে চাপের মুখে দারুণ ব্যাটিং করে নজর কেড়েছেন সৈকত। ৪৫ বলে ৪৫ রানের লড়াকু ইনিংস খেলে নির্বাচকদের আস্থার প্রতিদান ভালোমতোই দিয়েছেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

গত বছর থেকেই ঘরোয়া ক্রিকেটে দারুণ খেলছেন মোসাদ্দেক। গত জাতীয় লিগে তিনটি ডাবল সেঞ্চুরি করার পর বিপিএলে ঢাকা ডায়নামাইটসের হয়ে দারুণ পারফলম্যান্স করেন। তবে তার চেয়েও উজ্জল পারফরমার ছিলেন এবারের ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে আবাহনীর হয়ে। ১৬ ম্যাচে ১৪ ইনিংস ব্যাট হাতে সংগ্রহ করেছিলেণ ৬২২ রান। এছাড়াও তুলে নেন ১৫টি উইকেটও। এবার ইংল্যান্ড সিরিজে নিজেকে মেলে ধরার অপেক্ষায় টাইগারদের তরুণ এই তুর্কি।

তথ্যসূত্রঃ জাগোনিউজ২৪

Googleplus Pint
Anik Sutradhar
Posts 7002
Post Views 642