MysmsBD.ComLogin Sign Up

‘সাকিবের অর্জন বাংলাদেশের ক্রিকেটে উদাহরণ হয়ে থাকবে’

In ক্রিকেট দুনিয়া - Aug 06 at 5:47pm
‘সাকিবের অর্জন বাংলাদেশের ক্রিকেটে উদাহরণ হয়ে থাকবে’

নামের পাশে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের খেতাব সাকিব আল হাসানের। ক্রিকেট ক্যারিয়ার যখন শুরু করেছিলেন তখন ক্রিকেটাকে পেশা হিসেবে নেওয়ার কথা চিন্তাও করেননি। কিন্তু খ্যাতি দ্রুত তাকে পেশাদার ক্রিকেটার বানিয়ে দেয়।

বাংলাদেশের ক্রিকেটের সাকিব আল হাসান দ্রুত আন্তর্জাতিক তারকা বনে যান। অনেকটা সময় সাকিবেই পরিচিত হয় বাংলাদেশ। ক্রিকেটারদের জীবনে অনেক কষ্ট থাকে। অনেক চড়াই-উতরাই পার করে ক্রিকেটার হন। কিন্তু সাকিব সেখানে ভিন্ন। আজ থেকে দশ বছর আগে সাকিব যখন ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন তখন কেউ তাকে চিনত না। কিন্তু দশ বছরে সাকিবকে চেনেন না এমন কেউ নেই। ফেসবুকে তার ফলোয়ার ৯০ লাখ ২১ হাজার ৫২০। বলাবাহুল্য, বাংলাদেশির মধ্যে সর্বোচ্চ ফলোয়ার তারই।

২০০৬ সালের ৬ আগস্ট সাকিবের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পথ চলা শুরু। সেদিন ওয়ানডে অভিষিক্ত সাকিবের ব্যাট থেকে আসে অপরাজিত ৩০, আর বল হাতে এক উইকেট। দশ বছরে সেই সাকিবের নামের পাশে যুক্ত ৮ হাজার ৩২৪ রান ও ৪১৮ উইকেট।

বাংলাদেশের ক্রিকেটের পোস্টারবয় সাকিব আল হাসান তা সবারই জানা। তাকে দেখে শেখেন না, অনুকরণ করেন না এমন কেউ কি আছেন? শনিবার বিসিবিতে শামসুর রহমান শুভ য্নে সে কথাই বললেন, ‘সাকিব দশ বছর খেলে ফেলেছে, সেটা অনেক বড় অর্জন। অভিজ্ঞতার একটা বিষয় থাকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। এটা অর্জনে যেই জেদ, ইচ্ছে, ত্যাগ করেছে, সেটা কিন্তু একটা উদাহরণ হয়ে থাকবে। সাকিব বাংলাদেশের ক্রিকেটে সেই উদাহরণ তৈরী করতে পেরেছে যা আগামী প্রজন্মের ক্রিকেটারদের জন্য ভালো হবে।’

ঘরোয়া ক্রিকেটের নিয়মিত পারফর্মার আরো বলেছেন, ‘সাকিব বাংলাদেশের জন্য অনেক কিছু করেছে। বাংলাদেশকে দেওয়ার মতো আরো অনেক কিছুর সামর্থ্য ওর এখনো আছে। সাকিব ১০ বছর খেলে ফেলেছে। কিন্তু ওর বয়সটা মাত্র ২৭ কিংবা ২৮। আমাদের প্রত্যাশা ও সুস্থ থেকে আরো ১০-১২ বছর খেলুক। তাহলে বাংলাদেশ দল আরো ভালো একটা পর্যায়ে যাবে।’

ওয়ানডেতে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ৪ হাজার রান এবং টি-টোয়েন্টিতে দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ১ হাজার রান করেছেন সাকিব। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দশ হাজার রানের মাইলফলক ছুঁতে সাকিবের প্রয়োজন ১ হাজার ৬৭৬ রান। সাকিব দশ হাজার রান করতে পারলে বাংলাদেশের ক্রিকেটের মানদন্ড আরো বৃদ্ধি পাবে বলে বিশ্বাস শামসুর রহমানের।

তার ভাষ্য, ‘অন্যান্য দেশে দেখবেন যে সাঙ্গাকারা, মাহেলা জয়াবর্ধনে, গাঙ্গুলি (সৌরভ) সবাই দশ হাজার রান করেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। তাদের দেখে অন্যান্য তরুণ ক্রিকেটাররা উৎসাহিত হয়। আমাদের কেউ যদি এটা করতে পারে তাহলে সেটা উদাহরণ হয়ে থাকবে। আগামী প্রজন্মের ক্রিকেটাররা আমাদের ক্রিকেটারদের দেখে অনুপ্রাণিত হবে।’

তথ্যসূত্রঃ রাইজিংবিডি

Googleplus Pint
Anik Sutradhar
Posts 7007
Post Views 735