MysmsBD.ComLogin Sign Up

আমার অ্যাকশনে বড় কোনো পরিবর্তনের দরকার ছিল না - তাসকিন

In ক্রিকেট দুনিয়া - Aug 01 at 6:13pm
আমার অ্যাকশনে বড় কোনো পরিবর্তনের দরকার ছিল না - তাসকিন

গত রবিবারের বোলিং অ্যাকশনের ফুটেজ পরীক্ষা রীতিমত আত্মবিশ্বাসই যেন বাড়িয়ে দিয়েছে দেশের অন্যতম সেরা পেসার তাসকিন আহমেদের। ফুটেজ নেওয়ার পর বোলিং অ্যাকশন রিভিউ কমিটির করা ইতিবাচক মন্তব্যই তাসকিনের এই মনোবল বৃদ্ধির কারন।

গত এপ্রিল থেকে জুন পর্যন্ত চলা ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে খেলার পাশাপাশি বিসিবির কোচ মাহবুব আলী জাকির তত্ত্বাবধানেও ছিলেন তাসকিন। আর এই প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবেই গত রবিবার বিসিবির অ্যাকশন রিভিউ কমিটির সম্মুখে পরীক্ষায় অবতীর্ণ হন তাসকিন। মিরপুরের ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমি মাঠে ছয়টি ক্যামেরার সামনে এ পরীক্ষা দেন তাসকিন।

বিসিবির তথ্য ব্যবস্থাপনা কমিটির ম্যানেজার নাসির আহমেদ এই পরীক্ষা সম্পর্কে বলেন, 'কমিটি ফুটেজগুলি ভালভাবে পরীক্ষা করেছে, যেখানে তাসকিনের বোলিং অ্যাকশানের পরিষ্কার উন্নতি লক্ষণীয়। '

তিনি আরো বলেন, 'আমরা এই ফুটেজগুলি খুবই প্রফেশনালভাবে গ্রহণ করেছি। এবং এগুলির পর্যবেক্ষনও খুব সুক্ষ্মভাবে করা হয়েছে। আমরা আইসিসির বোলিং অ্যাকশান পরীক্ষার আগেই তাসকিনের অ্যাকশানের আরো উন্নতির আশা করছি।'

তবে নাসির এও বলেন যে, 'আমরা আমাদের পরীক্ষা টু-ডি ক্যামেরায় সম্পন্ন করেছি, যেখানে আইসিসির পরীক্ষা হবে থ্রি-ডি ক্যামেরার অধীনে। যার ফলে শতভাগ উন্নতি হয়েছে এটা বলা কষ্টকর। কিন্তু আমরা স্পষ্টতই তার উন্নতি বুঝতে পারছি, এবং আরো উন্নতির আশা করছি।'

রোববারের ফুটেজ টেস্টে সব ধরণের বল মিলিয়ে চার ওভার বল করেছেন তাসকিন। কাজ শেষে শোনালেন, নিজের আত্মতৃপ্তির কথা।

তিনি বলেছেন, ‘আমার তো সত্যি বলতে মেজর চেঞ্জের দরকার ছিল না। কারণ বড় সমস্যা ছিল না। ৭ ওভারের মধ্যে ৩টা বলে ত্রুটি পেয়েছিল তারা। সেটা বড় সমস্যা ছিল না। তার পরও যতটুকু কাজ হয়েছে তাতে আমি খুশি। অনেক ভালো এখন অবস্থা।’

এবারই প্রথমবারের মতো বোলিং অ্যাকশন শোধরাতে প্রযুক্তির সাহায্য নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সঙ্গে রয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। বোর্ডের এতোসব কর্মকান্ড মানসিক শান্তি দিচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অন্যতম এই গতিদানবকে।

এ নিয়ে বললেন, ‘ভালো লাগছে যে আমাদের দেশেও এখন এত উন্নত প্রযুক্তির ব্যবস্থা হয়েছে। আমি এখন অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী। অনেক এক্সপার্ট কাজ করছেন আমার সঙ্গে। তাদের মত ও আমার আত্মবিশ্বাস মিলিয়ে অনেক হ্যাপি আছি এখন। শেষবার যখন তারা দেখেছিল, বলেছিল যে অনেক ইমপ্রুভড। এভাবে উন্নতির ধারা থাকলে অল্প সময়ের মধ্যেই টেস্টের (অ্যাকশন পরীক্ষা) জন্য যেতে পারব আশা করি।’

বিসিবি এদিকে বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্টকে তাসকিন ও সানির ব্যাপারে দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহনের তাগিদ দিয়েছে। আর কোচ চন্দিকা হাতুরিসিংহের বিশ্বাস, আগস্টেই আইসিসি আয়োজিত পরীক্ষায় বসতে পারবেন তাসকিন ও সানি। এবং সেইসাথে আসন্ন অক্টোবরের ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তাদের দলে অন্তর্ভুক্তির আশাও রাখেন তিনি।

তথ্যসূত্রঃ নয়া দিগন্ত

Googleplus Pint
Anik Sutradhar
Posts 6736
Post Views 245