MysmsBD.ComLogin Sign Up

কোন ধরনের ভুল সিদ্ধান্তে লোকে বেশি অনুতাপ করে?

In লাইফ স্টাইল - Jul 17 at 8:52am
কোন ধরনের ভুল সিদ্ধান্তে লোকে বেশি অনুতাপ করে?

ধরুন ঘরের পুরোনো বাক্স ঘাটতে গিয়ে আপনি এক বান্ডিল সঞ্চয়ী বন্ড পেয়ে গেলেন। আপনি যখন ছোট ছিলেন তখন আপনার দাদীমা বন্ডগুলো আপনার জন্য কিনে রেখেছেন।

কয়েকটি বন্ড ভাঙ্গিয়ে কিছু টাকা কোনো একটি কম্পানিতে বিনিয়োগের চিন্তা করেও সময়ের অভাবে করতে পারলেন না। দুই বছর পর জানতে পারলেন যদি ওই কোম্পানিতে বিনিয়োগ করতেন তাহলে আপনি ১ হাজার ডলার লাভ করতে পারতেন।

আবার ধরুন, কয়েকটি বন্ড ভাঙ্গিয়ে আপনি অন্য একটি কম্পানিতে বিনিয়োগ করলেন। কিন্তু দুই বছর পর আপনি জানতে পারলেন বন্ডগুলো বিনিয়োগ না করে বরং সেগুলো ফেলে রাখলেই সুদ বাবদ আপনি ১ হাজার ডলার লাভ করতে পারতেন।

দুটি ক্ষেত্রেই আপনি একটি ভুল করেছেন। এখন প্রশ্ন হলো- কোন ভুলটির জন্য আপনি পরে বেশি অনুতাপ করবেন?

গবেষণায় দেখা গেছে বেশিরভাগ মানুষই- প্রায় প্রতি ১০ জনের ৯ জনই দ্বিতীয় ক্ষেত্রের ভুলটির জন্যই বেশি অনুতাপ করবে। কারণ ওই ক্ষেত্রে বিনিয়োগটা করা হয়েছে বাজে ভাবে।

কেউই নিজেকে বোকা দেখতে বা বোকা ভাবতে পছন্দ করেন না। বোকামিপূর্ণ কাজ বোকামিপূর্ণ আলস্যের চেয়েও অনেকে বেশি ক্ষতিকর।

কিন্তু গবেষণায় আরেকটি বিস্ময়কর বিষয় উঠে এসেছে। বাজেভাবে বিনিয়োগের জন্য অনুতাপ করার চেয়ে আমরা বরং কোনো ভালো সুযোগ হাতছাড়া করার জন্যই বেশি অনুতাপ করি পরবর্তী জীবনে।

গবেষণায় দেখা গেছে, বোকামিপূর্ণ কাজের জন্য আমাদের মনে যে অনুতাপের সৃষ্টি হয় তা হয় ক্ষণস্থায়ী এবং এমনকি মাত্র এক বা দুই সপ্তাহের মধ্যেই তা উবে যায়।

কিন্তু আমরা যা করিনি বা যে সুযোগ হাতছাড়া করে ফেলেছি তার জন্যই বরং আমাদেরকে দীর্ঘদিন ধরে অনুতাপ করতে হয়। এজন্য আমাদেরকে বছরের পর বছর এমনকি সারা জীবন ধরেও অনুতাপ করতে হয়।

কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক কিছু ৭০ বছর বয়সী লোককে প্রশ্ন করেছিলেন, “আপনাকে যদি আবার নতুন করে জীবন শুরু করতে বলা হয় তাহলে আপনি কোন কাজটি ভিন্নভাবে করবেন?”

এই প্রশ্নের উত্তরে কয়েকজন আক্ষেপ প্রকাশ করে বলেন, “অত অল্প বয়সে আমার বিয়ে করা ঠিক হয়নি” বা “জীবনে আর কখনো ধুমপান করব না।”

কিন্তু যারা উপরোক্ত ধরনের উত্তর দিয়েছেন তাদের চেয়ে আরো চারগুন বেশি মানুষ বলেছেন, “কলেজের গণ্ডিটা পার হওয়া উচিৎ ছিল”। “ক্যারিয়ার নিয়ে আমার আরো উচ্চাভিলাষী হওয়া উচিৎ ছিল।” “আমি অতি বেশি বিনয়ী ছিলাম, নিজেকে প্রকাশে আমার আরো বেশি জেদি হওয়া দরকার ছিল।”

আমাদের ধারণা আমার যা করি তা নিয়েই শুধু আমরা অনুতাপ করি। কিন্তু গবেষণায় দেখা গেছে, আমরা যা করিনি বা যে সুযোগ হাতছাড়া করে ফেলেছি; যার জন্য আমাদের অর্থ, সময় বা শক্তি বিনিয়োগ করিনি তার জন্যই বেশি অনুতাপ করতে হয় আমাদের।

কিন্তু কেন? লোকে কেন তাদের ভুল কাজগুলোর জন্যই বেশি অনুতাপ করে না; যেসব কাজ তাদের জীবনকে আরো বেশি কঠিন করে তুলেছে? গবেষকদের বিশ্বাস, যখনই আমরা কোনো কাজ করি, বিশেষ করে সেটি যদি বিয়ে করা বা চাকরি ছেড়ে দেওয়ার মতো কোনো বড় সিদ্ধান্ত হয়, সে কাজটির ফলে প্রাপ্ত অভিজ্ঞতা আমরা আমাদের পরবর্তী জীবনে কাজে লাগাই।

এবং এর মধ্য দিয়ে আমরা আসলে নিজেদেরকেও চিনতে পারি। আর এভাবেই আমরা আমাদের জীবনের অর্থ খুঁজে পাই। ভুল কাজটি সম্পর্কে অামরা ভাবি, আমি এই কাজটি নিজের পছন্দেই করেছি।

আর হ্যাঁ, এর ফলে আমার জীবনে বেশ বিপর্যয় নেমে এসেছিল। কিন্তু এই ভুলই, আমি আজ যেখানে দাঁড়িয়ে আছি, আমাকে সেখানে নিয়ে এসেছে।

লোকে যেসব বিষয় নিয়ে বেশি অনুতাপ করে তার একটি হলো বিয়ে এবং বিয়ে বিচ্ছেদ। আমরা হয়তো ভেবে থাকতে পারি, বিয়ে বিচ্ছেদকারী লোকেরা বিয়ে করাটাই ভুল হয়েছে বলে অনুতাপ করে বেশি।

কিন্তু গবেষণায় দেখা গেছে, বিয়ে বিচ্ছেদকারী লোকদের ৬০ শতাংশই বিচ্ছেদ হওয়া সত্ত্বেও ওই বিয়েকে একটি ভালো সিদ্ধান্ত হিসেবেই দেখছেন। আর মাত্র ৩৯ শতাংশ ডিভোর্সি লোক বিচ্ছেদের কারণে বিয়ে করাটাই ভুল হয়েছে এমন বলে অনুতাপ করেছেন।

গবেষণায় আরো দেখা গেছে, নারী-পুরুষ নির্বিশেষে বেশিরভাগ লোকই যেসব পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে সেগুলো আরো বেশি সময় ধরে এবং আরো জোরালোভাবে করতে না পারার কারণে অনুতাপ করে। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জাপান, রাশিয়া ও চীনসহ প্রায় পুরো বিশ্বজুড়েই এই প্রবণতা দেখা গেছে।

আমরা যদি আমাদের গৃহীত পদক্ষেপগুলো সম্পর্কে সবচেয়ে বেশি ভালো লাগার অনুভুতি পেয়ে থাকি তাহলে কি প্রতিটি সুযোগের ব্যাপারেই আমাদের হ্যাঁ বলা উচিৎ? অবশ্যই না। আর এটা কখেনো সম্ভবও নয়।

কিন্তু জীবনের বড় বড় লক্ষ্য-উদ্দেশ্যগুলোর ব্যাপারে মনোযোগী হওয়াটাই উত্তম কাজ। যদি এমন কোনো কাজের দরজা আপনার সামনে খুলে যায় যা আপনি জীবনভরই করতে চেয়েছেন তাহলে তাতে মনোযোগ দিন; এমন সুযোগ হাতছাড়া করাটা একদমই উচিৎ কাজ হবে না।

আপনার মনে হয়তো হাজারো ভুল কাজ করার বিষয়ে অনুতাপ থাকতে পারে। কিন্তু ওই খোলা দরজাটিকে উপেক্ষা করলে আপনার জীবনে অনুতাপের আর কোনো সীমা-পরিসীমা থাকবে না।

Googleplus Pint
Noyon Khan
Posts 3294
Post Views 366