MysmsBD.ComLogin Sign Up

পুত্রবধূ হত্যার একদিন পর শাশুড়ির ‘আত্মহত্যা’

In দেশের খবর - Jul 10 at 7:09am
পুত্রবধূ হত্যার একদিন পর শাশুড়ির ‘আত্মহত্যা’

পুত্রবধূকে হত্যার অভিযোগের একদিন পর মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলার বহড়াবাড়ি গ্রামে শাশুড়ি মমতা বেগম (৫০) ‘আত্মহত্যা’ করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

লোক-লজ্জা ও গ্রেপ্তারের ভয়ে গতকাল শনিবার ভোরে তিনি কীটনাশক পানে এই আত্মহননের পথ বেছে নেন বলে স্বজনরা জানিয়েছে। তিনি ওই গ্রামের মজিবর রহমানের স্ত্রী।

এর আগে যৌতুক না পেয়ে গতকাল শুক্রবার ভোরে ছেলের বউ কণা আক্তারকে (১৯) শাশুড়ি মমতাসহ স্বামী মনির হোসেন (২১), শ্বশুর মজিবর রহমান (৫৫), ননদ রিক্তা আক্তার (২৫) ও ভগ্নিপতি মহিদুর রহমান (৩০) পরিবারের সদস্যরা মিলে পিটিয়ে এবং শ্বাসরোধে হত্যা করেন বলে দৌলতপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দেন নিহতের ভাই আরিফ খান। এই ঘটনায় কণার স্বামী মনির হোসেনকে আটক করে পুলিশ।

স্বজন ও স্থানীয়রা জানান, গতকাল শুক্রবার ভোরে মনিরের স্ত্রী কণা অস্বাভাবিকভাবে মারা যান। স্বামীর বাড়ির লোকজনের দাবি, তিনি আত্মহত্যা করেছেন। কিন্তু কণার পরিবার স্বামী, শ্বশুর-শাশুড়ি, ননদ ও ভগ্নিপতিসহ পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ করেন।

শুক্রবার দুপুরে কণার লাশ উদ্ধারের সময় মনিরকে আটক করে পুলিশ। এর পর থেকে পরিবারের অন্যরা গ্রেপ্তার আতঙ্কে ছিলেন। এরই মধ্যে প্রতিবেশী, আত্মীয়স্বজনসহ লোকলজ্জায় এবং গ্রেপ্তারের ভয়ে গতকাল শনিবার ভোরে মমতা কীটনাশক পান করেন।

স্বজনরা তা দেখে দ্রুত তাঁকে উলাইল বাজারের পল্লী চিকিৎসকের কাছে ও পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। কর্তব্যরত চিকিৎসক মমতাকে মৃত ঘোষণা করেন। এর পরপরই লাশ বাড়ি নিয়ে আসেন স্বজনরা।

দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল নিশাত জানান, দুপুর ১টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে মমতা বেগমের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Googleplus Pint
Noyon Khan
Posts 3481
Post Views 240