MysmsBD.ComLogin Sign Up

Search Unlimited Music, Videos And Download Free @ Tube Downloader

চ্যাম্পিয়নদের বিদায় করে প্রতিশোধ ইতালির

In ফুটবল দুনিয়া - Jun 28 at 12:07am
চ্যাম্পিয়নদের বিদায় করে প্রতিশোধ ইতালির

গত ইউরোতে ফাইনালে শোচনীয় হার; এর আগেরবার কোয়ার্টার-ফাইনালে টাইব্রেকারে বিদায় - পর পর দুই ইউরোতে স্পেনের কাছে পরাজয়ের প্রতিশোধ নিল ইতালি। গত দুই বারের চ্যাম্পিয়নদের ২-০ গোলে হারিয়ে কোয়ার্টার-ফাইনালে উঠেছে আন্তোনিও কোনতের দল।

প্রথমার্ধে কিয়েল্লিনির সুযোগ সন্ধানী গোলের পর ম্যাচের যোগ করা সময়ে জয় নিশ্চিত করেন গ্রাৎসিয়ানো পেল্লে। কোয়ার্টার-ফাইনালে ইতালির প্রতিপক্ষ ইউরোপীয় ফুটবলের আরেক পরাশক্তি জার্মানি।

সাঁ-দেনিতে সোমবার গত ফাইনালে ইতালিকে ৪-০ গোলে হারানো স্পেনকে খুঁজেই পাওয়া যায়নি। শুরু থেকেই নিয়ন্ত্রণ ছিল ইতালির। আক্রমণেও বেশি ওঠে চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। স্পেনের গোলরক্ষক দাভিদ দে হেয়ার দারুণ দুটি সেভ না করলে প্রথমার্ধেই একাধিক গোল পেতো তারা।

অষ্টম মিনিটে আলেসান্দ্রো ফ্লোরেন্সির ফ্রি-কিকে গ্রাৎসিয়ানো পেল্লের হেড জালে ঢোকার পথে নিচের দিকে ঝাঁপিয়ে ফেরান দে হেয়া।

স্পেনের রক্ষণে কয়েকবার হানা দেওয়ার পর ৩৩তম মিনিটে এগিয়ে যায় ইতালি। ব্রাজিলে জন্ম নেওয়া এদেরের নিচু শট দে হেয়া ঠেকালে ছুটে এসে ফিরতি বল জালে পঠিয়ে দেন জর্জিও কিয়েল্লিনি।

বিরতির আগে বাঁ দিক থেকে বল নিয়ে এসে এমানুয়েলে জাক্কেরিনির দূরপাল্লার শট লাফিয়ে এক হাতে দুর্দান্ত সেভ করেন দে হেয়া।

বিরতির পর স্পেনকে আক্রমণের বেশি সুযোগ দেয়নি ইতালি। শুরুর দিকে মোরাতার হেড সহজেই ঠেকান জানলুইজি বুফ্ফন।

৫৫তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর সহজ একটি সুযোগ নষ্ট করেন এদের। পেল্লের ফ্লিকে বল পেয়ে গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোল করতে পারেননি এই ফরোয়ার্ড। সোজাসুজি আসা শট ঠেকিয়ে দেন দে হেয়া।

ম্যাচের শেষ ১৫ মিনিটে স্পেন বেশ কয়েকটি ভালো আক্রমণ করলেও গোল পায়নি। ৭৬তম মিনিটে আন্দ্রেস ইনিয়েস্তার ভলি দক্ষতার সঙ্গে ফেরান বুফ্ফন। পরের মিনিটে পিকের দুরপাল্লার শট ডানে ঝাঁপিয়ে ঠেকান বর্ষীয়ান এই গোলরক্ষক।

যোগ করা সময়ে পেল্লের কাছ থেকে নেওয়া ভলিতে দারুণ এক জয় নিশ্চিত হয়ে যায় ইতালির।

২০০৮ সালের ইউরোতে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পথে কোয়ার্টার-ফাইনালে পেনাল্টি শুটআউটে ইতালিকে হারিয়েছিল স্পেন। এরপর থেকে ইতালির কাছে স্পেন হয়ে পড়েছিল প্রায় অজেয়। গত আসরের ফাইনালের পর ২০১৩ সালের কনফেডারেশন কাপেও ইতালি পারেনি। আগের ১১টি ম্যাচের মধ্যে একটিতেই কেবল জিতেছিল তারা। দারুণ জয়ে তাই হিসাবের কিছুটি চুকিয়ে দিল তারা।

Googleplus Pint
Anik Sutradhar
Posts 6796
Post Views 299