MysmsBD.ComLogin Sign Up

Search Unlimited Music, Videos And Download Free @ Tube Downloader

জানেন, কী কী কারণে আপনার ত্বকের ক্ষতি হয়?

In রূপচর্চা/বিউটি-টিপস - Jun 22 at 10:16am
জানেন, কী কী কারণে আপনার ত্বকের ক্ষতি হয়?

কথায় বলে স্বাস্থ্যই সম্পদ৷ সুস্বাস্থ্যের অধিকারীর মনও সুন্দর হয়৷ তবে সুস্বাস্থ্য বলতে শুধুই সিক্স প্যাক অ্যাব বা টাইট মাসল বোঝায় না৷ আপনি কতটা ফিট, সারাদিনে কত কাজ করতে পারছেন, খাদ্য তালিকায় কী কী খাবারের নাম রেখেছেন, এসবই বলে দেয় আপনি সুস্থ কি না৷

শরীরের সঙ্গে ত্বকের যত্নও অত্যন্ত জরুরি৷ ত্বক উজ্জ্বল হলে বন্ধুদের মধ্যে বা কর্মক্ষেত্রে আত্মবিশ্বাসও বেড়ে যায়৷ মুখ ও দেহের বিভিন্ন অংশে ব়্যাশ বা ফুসকুরির সমস্যায় ভোগেন অনেকেই৷ প্রথমে জানতে হবে, তা কেন হচ্ছে৷ তারপর সেই সমস্যা সমাধানের পথ খুঁজতে হবে৷


১. জিমে ওয়ার্ক-আউট – অনেকেই শরীর চর্চার জন্য জিমকে বেছে নেন৷ কিন্তু জেনে রাখা ভাল, জিম থেকে আপনার শরীরে নানা ধরনের রোগ বাসা বাধতে পারে৷ নিয়মিত জিমে যাওয়ার পর যদি দেখেন, সারা শরীরে ব়্যাশ বা ফুসকুরি হয়েছে, তাহলে বুঝতে হবে জিমের মেশিন থেকেই এসেছে এই রোগ৷ একবার এমনটা হলে ইনফেকশন হতে বেশি দেরি হয় না৷ ভাবছেন জিম থেকে কীভাবে দেহে ব়্যাশ হবে? আসলে, আপনি জিমে যেসব ফিটনেস মেশিন ব্যবহার করেন, তা অন্যেরাও ব্যবহার করে থাকেন৷ যাঁর এই রোগ আছে, তার পরে আপনি মেশিনটি ব্যবহার করলেন, এবং হাত না ধুয়ে সেই হাতই মুখে দিলেন৷ ব্যস, মুহূর্তে রোগ ছড়িয়ে যাবে৷ তাই প্রতিবার মেশিন ব্যবহার করার আগে অবশ্যই মেশিনটি মুছে নিন৷ ওয়ার্ক-আউটের পর হাত না ধুয়ে কখনও মুখে হাত দেবেন না৷

২. গরমে ওয়ার্ক-আউট – গরমের মধ্যে শরীরচর্চা করলেও হতে পারে ব়্যাশ৷ লালচে রঙের ব্রণর মতোই দেখতে এই ফুসকরি৷ খুব রোদে মোটরবাইকে ঘুরলে বা হাঁটলেও শরীরে দেখা দিতে পারে এই ধরনের ব়্যাশ৷ ত্বকের এই রোগ থেকে নিজেকে বাঁচাতে চেষ্টা করুন ছায়া দিয়ে হাঁটার৷ ছায়াতে শরীরচর্চা করুন৷ সরাসরি সূর্যের তাপ দেহে লাগতে দেবেন না৷ বাইকে চড়লে সারা শরীর ও মুখ ওড়না বা রুমাল দিয়ে ঢেকে নিন৷ বাজারে এখন অনেক ধরনের স্কিনি কিনতে পাওয়া যায়৷ সেগুলিও ব্যবহার করতে পারেন৷

৩. সানস্ক্রিন ছাড়া রোদে ঘোরা – রোদের প্রখর তাপ আপনার মুখে শুধু ট্যানই তৈরি করে না, সারা দেহে ও মুখে ব়্যাশও হতে পারে৷ সানস্ক্রিন ছাড়া ভুল করেও বাড়ির বাইরে পা রাখবেন না৷ রোদে বেরোনোর অন্তত আধ ঘণ্টা আগে মুখে ও দেহের খোলা অংশগুলিতে সানস্ক্রিন মেখে নিন৷ এসপিএফ ৫০ যুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে পারলে সবচেয়ে ভাল৷

৪. আঁটসাট পোশাক – স্কিন ফিট পোশাক না পড়লে ফ্যাশন নষ্ট হয়ে যাবে৷ যুবপ্রজন্মের কাছে এটাই স্বাভাবিক ধারণা৷ কিন্তু জানেন কি, আঁটসাট পোশাক আপনার ত্বকের কতটা ক্ষতি করে? অনেকক্ষণ টাইট পোশাক পরে থাকলে কোমর, হাত, গলার মতো বিভিন্ন অংশে থাকা বসাতে পারে ব়্যাশ৷ সেই ফুসকুরি চুলকালে আরও বিপদে পড়বেন৷ কারণ হাতের নখ থেকেও ইনফেকশন ছড়াতে পারে৷ তাই গরমে খুব বেশি আঁটসাট পোশাক এড়িয়ে চলুন৷ ত্বক সুস্থ থাকবে৷ ওয়ার্ক-আউটের সময় এমন পোষাক পরলেও তাড়াতাড়ি স্নান করে চেঞ্জ করে নিন৷

৫. ফুসকুরি চুলকানো – মুখে বা শরীরের যেসব অংশে ব়্যাশ হয়েছে সেই অংশ অনেক সময় জেনে, আবার কখনও অজান্তেই চুলকে ফেলেন৷ বেশ খানিকক্ষণ সেসব জায়গা চুলকালে জায়গাটি লাল হয়ে যায়৷ এমনকী রক্তও বেরিয়ে যেতে পারে৷ এমনটা হলে জায়গাগুলি ঠান্ডা জলে ভাল করে ধুয়ে অ্যান্টি-বায়োটিক মলম লাগান৷ অ্যান্টি-ফাঙ্গাল পাউডারও ব্যবহার করতে পারেন৷

ভাবছেন আজ থাক, কাল করব? এসব জিনিস ফেলে রাখবেন না৷ ত্বকের যত্ন নিন৷ সুস্থ থাকুন৷ সুন্দর থাকুন৷

Googleplus Pint
Anik Sutradhar
Posts 6824
Post Views 388