MysmsBD.ComLogin Sign Up

[Trick] Uc Browser দিচ্ছে ৪০০০টাকা করে বিকাশে। বাংলাদেশ থেকে প্রথম থেকে ৪০০০ জন পাবে ৪০০০ টাকা করে ।

নিজেকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগা ব্যক্তিদের চিনে নিন!

In লাইফ স্টাইল - Jun 19 at 2:41pm
নিজেকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগা ব্যক্তিদের চিনে নিন!

নিজেকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগা লোকদেরকে খুব সহজেই চিহ্নিত করা সম্ভব। নিচের এই কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে পরীক্ষা নিলেই আপনি তাদেরকে খুব সহজেই চিহ্নিত করতে পারবেন…

অন্যদের চেহারা-সুরৎ নিয়ে বাজে মন্তব্য:
কেউ যদি নিজের চেহার-সুরৎ নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে তাহলে তারা অন্যদের প্রতি আঙ্গুল তুলে- তারা দেখতে কতটা অসুন্দর, তাদের ভুলগুলো কী এবং তাদের কাপড়-চোপড়ের রঙ কতটা কদাকার এসব বিষয় নিয়ে কটু মন্তব্য করতে থাকে। কিন্তু যারা নিজেদের নিয়ে কোনো ধরনের হীনমন্যতায় ভোগেন না তারা কখনো অন্যদের কোনো কিছু হীন করে দেখান না।

একসময়ের ঘনিষ্ঠজনদের মানহানি:
আগে ঘনিষ্ঠ ছিল এমন কারো সঙ্গে করা নিজেদের আচার-আচরণ নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগেন যারা তারা ওই ঘনিষ্ঠজনকে লোকের সামনে হেয় করবে অথবা তার বিরুদ্ধে কুৎসা রটাবে। এমনকি আরো ভয়াবহ কাণ্ডটি হলো- তারা শুধুমাত্র গল্পের একটি দিক সম্পর্কেই বলবে।

আস্ফালন করে বেড়ানো:
কেউ যদি নিজের ব্যক্তিগত জীবন, কর্মজীবন, সম্পর্ক বা জীবনের নির্ধারিত লক্ষ্যগুলো অর্জন নিয়ে নিরাপত্তহীনতায় ভোগে তাহলে সে যা যা করেছে সবসময়ই সেসব নিয়ে আস্ফালন করে বেড়াবে।

তার এই আস্ফালনকে আত্মবিশ্বাসের প্রকাশ মনে করে ভুল করলে চলবে না। যারা তাদের জীবন যখন যেমন আছে, যেদিকে যাচ্ছে এবং এ পর্যন্ত যা কিছু অর্জন করেছে তাতেই সন্তুষ্ট থাকে তারা কখনো এভাবে আস্ফালন করে বেড়ায় না।

অন্যের সাফল্যকে খাটো করে দেখা:
যারা অন্যের সাফল্যকে নিজের চেয়ে বড় হতে দেখে বা অন্যদের সাফল্যের প্রতি লোকের প্রশংসার বান বইতে দেখে ভেতরে ভেতরে হিংসায় উন্মত্ত হয়ে পড়ে তারাই অন্যের সাফল্যকে যে কোনো উপায়ে হেয় করতে চায় বা স্বীকৃতি দিতে চায় না।

আর যারা অন্যের সাফল্যের মূল্যায়ন করে তা নিজেদের অনুপ্রেরণা হিসেবে ব্যবহার করে এবং নিজেরাও বড় কিছু করার চেষ্টায় লিপ্ত হয় তারা কখনো কোনো সফল মানুষকে হেয় করে না।

অন্যদের পদদলনে অহেতুক অজুহাত খাড়া করা:
যারা অন্যদের সময় ও সম্পর্কের কোনো মূল্যায়নই করে না তারা সবসময়ই এর পেছনে যথেষ্ট ভালো কারণ দাঁড় করায়। যেমন কারো সঙ্গে দেখা করার নির্ধারিত সময়ের চেয়ে তারা সবসময়েই অন্তত আধা ঘন্টা দেরি করবে এবং এ ব্যাপারে যুক্তি প্রদর্শন করবে।

অথবা তারা কেন বন্ধু-বান্ধব ও পরিবারের সঙ্গে আরো ভালো আচরণ করছে না বা তারা কেন আপনার পেছনে আপনার ব্যাপারে খারাপ কথা বলছে এই সব বিষয়েই তাদের রয়েছে অখণ্ডনীয় সব যুক্তি। এমনকি আপনি যদি তাদেরকে এ বিষয়ে কোনো প্রশ্ন করেন তাহলে তারা এমন ভান করবে যে আপনি নিজেই বুঝি তাদের জন্য বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছেন!

সত্যিকার অর্থেই লুজার:
নিজেকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগা এই ধরনের লোকেরা হেরে যাওয়ার চেয়ে সম্ভবত আর কোনো কিছুকেই এতোটা ঘৃণা করেন না। এমনকি এরা যখন স্পষ্টতই হেরে যায় তারপরও এরা তা স্বীকার করে নেয় না।

উল্টো তারা যে আসলে হারেনি তার পক্ষেই অসংখ্য যুক্তি প্রদর্শন করতে থাকে- কেন তাদের এই হার ঠিক ছিল না, প্রতিপক্ষ কী করে ভারসাম্যহীনভাবে তার চেয়ে এগিয়ে ছিল বা প্রতিপক্ষ কী করে তার সঙ্গে প্রতারণা করছিল সেসবও তার জানা ছিল।

ভয়ঙ্কর বিজেতা:
একবার সাফল্য লাভ করেই এরা হয় আপনার পরবর্তী জয়ের সম্ভাবনাকে উড়িয়ে দিবে অথবা নিজেদের অতীত হারগুলোকে পুরোপুরি অস্বীকার করবে। অথবা অন্যদের মাঝে তাদের সাফল্য নিয়ে যে সন্দেহ ছিল তা পুরোপুরি নাকচ করে দেওয়ার চেষ্টায় লিপ্ত হবে।

অন্যদের দারিদ্র নিয়ে উপহাস:
যারা নিজেদের অর্থনৈতিক নিরাপত্তা নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে তারা প্রতিনিয়তই এবং অকপটে অন্যের দারিদ্র নিয়ে উপহাস করে। আর যারা নিজেদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে কত টাকা জমা আছে সে হিসেবে নিজের মূল্য নির্ধারণ করে না তারা কখনোই অন্যের দারিদ্র নিয়ে উপহাস করে না।

অন্যের ইতিবাচক বিষয়ের প্রতি বেখবর:
যারা অপরের মাহাত্ম্য, খ্যাতি বা অর্জন দেখে ভীত হয় তারা ওই অপর ব্যক্তিকে টেনে নিচে নামানোর জন্য বিরামহীনভাবে কাজ করে যায়। এই ধরনের লোকেরা যাদের কারণে নিজেরা আত্মবিশ্বাসের ঘাটতিতে ভোগে তাদেরকে টেনে নিচে নামানোর জন্য তাদের নেতিবাচক ও দুর্বল দিকগুলো খুজে বের করার আপ্রাণ চেষ্টা করে।

এমনকি তাদের মাঝে কোনো ইতিবাচক দিক থাকতে পারে তাও কখনোই স্বীকার করবে না।

বেহুদা হুমকি-ধামকি দিবে:
যারা এই ভয়ে থাকে যে, তাদের নিরাপত্তাহীনতাগুলো ধরা পড়ে গেছে, অথবা অন্তত তাদেরকে সন্দেহ করা হচ্ছে তখন যদি আপনি তাদের নিরাপত্তাহীনতামূলক আচরণ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তাহলে তারা বেহুদা হুমকি-ধামকি দিবে।

তারা আপনার খ্যাতি, জীবিকা এবং সম্পর্ক নিয়ে বেহুদা হুমকি-ধামকি দিবে। এমনকি তারা আপনার খ্যাতির ক্ষতি করার হুমকিও দিবে। প্রকৃতপক্ষে, যারা নিজেরা নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে তারা তাদের নিরাপত্তাহীনতা গোপন করার জন্য আপনাকে কোনো কারণ ছাড়াই হুমকি দিবে।

অতীতের ভুল নিয়ে আপনাকে বারবার খোঁচাবে:
যারা নিজেদের অতীত ভুল ও ব্যর্থতাগুলো নিয়ে গ্লানিতে ভোগে তারা আপনাকে আপনার অতীত ভুল ও ব্যর্থতাগুলো নিয়ে বারবার খোঁচা মারতে থাকবে। আপনার কোথায় খুঁত ছিল বা কোথায় ভুল করেছেন সারাক্ষণ শুধু তা খুঁজে বেড়াবে। আর সবাইকে প্ররোচতি করবে তারাও যেন আপনার ভুলগুলো দিয়েই আপনাকে চিরদিনের জন্য বিচার করে। আপনার মধ্যে যে মাহাত্ম্য ছিল বা যে মহৎ কাজগুলো সমাধা করেছেন সেগুলো পুরোপুরি উপেক্ষা করবে।

তাদের কথাই শেষ কথা:
নিজেদের নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগা এমন কিছু মানুষ আছেন যারা অন্যদের উপর কর্তৃত্ব ফলিয়ে, অন্যদের সামনে নিজেকে বুদ্ধিমান প্রতিপন্ন করে বা নিজের যথার্থতা প্রমাণ করে সুখ পান। এরা কখনোই নিজের দোষ স্বীকার করেন না; তাদের যু্ক্তিতর্ক যত খোঁড়াই হউক না কেন।

এবং এরা কখনোই কোনো বিষয়ে আপনাকে দ্বিমত পোষণ করার সুযোগ দিবে না।

এদের সব কিছুতেই ঢাকঢাক গুড়গুড় ভাব:
যারা নিজেদের দুর্বলতাগুলো ঢেকে রাখতে অক্ষম তারা সবসময়ই ভাবে যে, আমি, আপনি বা আমরা যা কিছুই করিনা কেন তা সরিসরি তাদেরকে খোঁচানোর জন্য করা হয়। এরা ভাবে তাদের আশে-পাশে যত আলোচনা-সমালোচনা হয় তা মূলত পরোক্ষে তাদেরকে উদ্দেশেই করা হচ্ছে।

[Trick] Uc Browser দিচ্ছে ৪০০০ টাকা করে বিকাশে। বাংলাদেশ থেকে প্রথম থেকে ৪০০০ জন পাবে ৪০০০ টাকা করে ।

Googleplus Pint
Noyon Khan
Posts 3450
Post Views 130