MysmsBD.ComLogin Sign Up

[Trick] Uc Browser দিচ্ছে ৪০০০টাকা করে বিকাশে। বাংলাদেশ থেকে প্রথম থেকে ৪০০০ জন পাবে ৪০০০ টাকা করে ।

মহাকাশে ক্ষুদ্রাকৃতির স্যাটেলাইট পাঠাচ্ছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়

In বিজ্ঞান জগৎ - Jun 16 at 11:11am
মহাকাশে ক্ষুদ্রাকৃতির স্যাটেলাইট পাঠাচ্ছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ব্র্যাক একটি ক্ষুদ্রাকৃতির স্যাটেলাইট তৈরি ও তা মহাকাশে উৎক্ষেপণের কাজ করছে। ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে এই ক্ষুদ্রাকৃতির স্যাটেলাইট মহাকাশে বাংলাদেশের হয়ে প্রথম কোনো পদচিহ্ন রাখতে যাচ্ছে।

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের শিক্ষা ও গবেষণার কাজে সহায়তা করতে প্রকল্পটি হাতে নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

প্রচলিত স্যাটেলাইটের তুলনায় অনেক ছোট আকারের এই স্যাটেলাইটটি থাকবে ভূপৃষ্ঠ থেকে মাত্র ৩৫০ কিলোমিটার উপরে।
জাপানের একটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যৌথভাবে কাজটি করছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়।


বুধবার ক্ষুদ্রাকৃতির এই স্যাটেলাইট নির্মাণ ও মহাকাশে তা উৎক্ষেপণের জন্য জাপানের কিউশু ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (কেআইটি) সঙ্গে চুক্তি করেছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়। ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সৈয়দ সাদ আন্দালিব এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, মহাকাশে এমন একটি স্যাটেলাইট পাঠানোর অর্থ দেশের সামগ্রিক দিক থেকে এগিয়ে থাকা। এর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ মহাকাশ গবেষণা ও প্রযুক্তি বিনিময়ের ক্ষেত্রে একটি নতুন যুগে প্রবেশ করল।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও ন্যানো স্যাটেলাইট প্রকল্পের প্রিন্সিপাল ইনভেস্টিগেটর মো. খলিলুর রহমান বলেন, সাধারণত স্যাটেলাইট বলতে যেটা বোঝায় সেটা কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট। যেটা টেলিভিশনের কাজে লাগে। কিন্তু আমাদের স্যাটেলাইটটি আসলে ন্যানো মানে খুব ছোট। এটি মাত্র ১০ সেন্টিমিটারের। যা ভূ-পৃষ্ঠ থেকে মাত্র ৩৫০ কিলোমিটার ওপরে স্থাপন করা হবে। এর থেকে আমরা খুব ভালোমানের ছবি পাবো।

তিনি জানান, ইতোমধ্যে স্যাটেলাইটটির নকশা প্রণয়নের কাজ শেষ হয়েছে। এর জন্য বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসেই একটি গ্রাউন্ড স্টেশন তৈরি করা হবে। এ বিষয়ে কেআইটির ল্যাবরেটরি অব স্পেসক্র্যাফট এনভায়রনমেন্ট ইন্টারঅ্যাকশন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ব্র্যাকের তিনজন শিক্ষার্থী কাজ করছেন।

এর মাধ্যমে বিশ্বে একটা বার্তা দেওয়া যাচ্ছে যে বাংলাদেশ এখন মহাকাশের অংশ এবং মহাকাশ গবেষণা নিয়ে কাজও হচ্ছে। এর পর হয়তো দেখা যাবে কোনো বিশ্ববিদ্যালয় রকেট নিয়ে কাজ করছে বলে বলেন ড. খলিলুর রহমান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগ, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, গণিত ও ন্যাচারাল সায়েন্স বিভাগ স্যাটেলাইট নিয়ে কাজ করছে।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে স্কাইপের মাধ্যমে জাপান থেকে ওই তিন শিক্ষার্থীসহ অধ্যাপক মেংগু চো ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে কেআইটির সাবেক সহকারী অধ্যাপক আরিফুর রহমান খান যোগ দেন।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বিটিআরসির স্পেকট্রাম বিভাগের মহাপরিচালক কর্নেল মো. নাসিম পারভেজ ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যাথমেটিক্স অ্যান্ড ন্যাচারাল সায়েন্সেস বিভাগের চেয়ারপারসন অধ্যাপক জিয়াউদ্দীন আহমেদ।

[Trick] Uc Browser দিচ্ছে ৪০০০ টাকা করে বিকাশে। বাংলাদেশ থেকে প্রথম থেকে ৪০০০ জন পাবে ৪০০০ টাকা করে ।

Googleplus Pint
Jafar IqBal
Posts 1522
Post Views 132