MysmsBD.ComLogin Sign Up

তাহিরের রেকর্ড বোলিংয়ে প্রোটিয়াদের জয়

In ক্রিকেট দুনিয়া - Jun 16 at 11:05am
তাহিরের রেকর্ড বোলিংয়ে প্রোটিয়াদের জয়

ওয়ানডে ইতিহাসের সেরা বোলিং ৮ উইকেট শিকারের। দ্বিতীয় সেরা ৭ উইকেটের রেকর্ডে ছিল ৮ জনের নাম। কিন্তু সেখানে কোনো দক্ষিণ আফ্রিকান ছিলেন না। লেগ স্পিনার ইমরান তাহির বুধবার অসাধারণ বোলিং করলেন সেন্ট কিটসে। ৯ ওভারে ৪৫ রানে ৭ উইকেট নিয়ে ঢুকে পড়লেন ইতিহাসের পাতায়। দক্ষিণ আফ্রিকার ইতিহাস সেরা বোলিং করে প্রায় একা হাতেই হারিয়ে দিলেন স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে দ্রুততম সময়ে ওয়ানডেতে ১০০ উইকেট নেওয়ার রেকর্ডও গড়েছেন তাহির। ৫৮ ম্যাচে মাইলফলকটি স্পর্শ করেছেন।

হাশিম আমলা ক্যারিয়ারের ২৩তম সেঞ্চুরিটি করলেন। ওয়স্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তার হাজার রান হলো। ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজে প্রথম কোনো দল ৩০০ এর বেশি রান করলো। আর ৩০০ এর বেশি রান তাড়া করে কখনো জিততে না পারার রেকর্ড ধরে রাখলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ফাইনালের আশা ধরে রাখতে জয় জরুরি। এমন ম্যাচে ৪ উইকেটে ৩৪৩ রান করেছিল প্রোটিয়ারা। এরপর ৩৮ ওভারে ২০৪ রানে অল আউট হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বোনাস পয়েন্ট ঠেকাতে হলে ২৭৪ রান করতে হতো ক্যারিবিয়ানদের।

সেন্ট কিটস পর্ব শেষে দেখা যাচ্ছে গায়ানা লেগের পর যেমন অবস্থা ছিল তেমনই আছে। অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ- ৩ দলই ৪টি করে ম্যাচ খেলেছে। দুটি করে জিতেছে, দুটি করে হেরেছে। দুটি বোনাস পয়েন্টের সৌজন্যে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা। তাদের পয়েন্ট ১০। অস্ট্রেলিয়ার ৯। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৮।

শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে আমলা ও তার তরুণ ওপেনিং পার্টনার কুইন্টন ডি কক মিলে নাজেহাল করেছেন ক্যারিবিয়ান বোলারদের। ১৮২ রানের জুটি গড়েছেন তারা। আমলা ৯৯ বলে ১৩টি চারে ১১০ রান করে বিদায় নেন। এরপর কক ফিরেছেন ৭১ রান নিয়ে। ইনজুরি থেকে ফিরে ক্রিস মরিস ৩ নম্বরে ব্যাট করার সুযোগ পান। দ্রুত ক্যামিও ইনিংস খেলে ৪০ রান দিয়ে গেছেন। ফাফ ডু প্লেসি ৫০ বলে টি-টোয়েন্টির মতো ৭৩ রান করেছেন। অধিনায়ক এবি ডি ভিলিয়ার্স করেছেন ২৭। তাতে বড় স্কোর পায় দক্ষিণ আফ্রিকা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই ওপেনার ফাস্ট বোলারদের পিটিয়ে ৬ ওভারে ৫৮ রান তুলে ফেললেন। এরপরই তাহিরকে আনা হলো। দ্বিতীয় ওভারেই আঘাত হানলেন তিনি। চায়নাম্যান তাবরাইজ শামসি হাত লাগালেন তার সাথে। তিনি ৪১ রানে নেন ২ উইকেট। ক্যারিবিয়ানদের প্রথম ৪ উইকেটের ১টি তাহিরের। পরের ৬টির প্রতিটি তার। ২৩তম ওভারে মারলন স্যামুয়েলসকে (২৪) নিজের শততম শিকার বানিয়েছেন তাহির। ৩৪তম ওভারে নিয়েছেন ৩ উইকেট। প্রথম দুই বলে জ্যাসন হোল্ডার ও কার্লোস ব্রাথওয়েটকে ফেরান। ওভারের শেষ বলে আউট করেন কাইরন পোলার্ডকে। পরের দুই ওভারে আরো দুই উইকেট নিয়ে ইতিহাস গড়ে ক্যারিবিয়ানদের গুটিয়ে দেন তাহির।

Googleplus Pint
Jafar IqBal
Posts 1522
Post Views 287